মদ ও জুয়ার আসর বন্ধ করতে হিলিতে সচেতনতা শিবির







হিলি, ১৪ মার্চ: চোলাই মদ বিক্রি ও জুয়ার আসর বন্ধ করতে এবার এলাকার মহিলাদের নিয়ে সচেতনতা শিবিরের আয়োজন করল হিলি ব্লক প্রশাসন। বুধবার বিকেলে হিলি থানার বিনশিরা গ্রাম পঞ্চায়েতের মকরামপুর এলাকায় একটি সচেতনতা শিবিরের আয়োজন করা হয়।





 

শিবিরে উপস্থিত ছিলেন হিলি ব্লকের বিডিও সঞ্জয় সুব্বা, ব্লক ওয়েল ফেয়ার অফিসার প্রশান্ত দত্ত সহ অন্যান্য আধিকারিক ও বিশিষ্টজন। এলাকায় চোলাই মদ বন্ধ করতেই মহিলাদের দ্বারা এমন উদ্যোগ বলে হিলির বিডিও সঞ্জয় সুব্বা জানিয়েছেন।




সীমান্তবর্তী গ্রামগুলিতে চোলাই মদের রমরমা থাকে বরাবরই। প্রায় প্রত্যেক বাড়িতেই বিক্রি হয় চোলাই মদ। এর প্রভাব পড়ছে যুব সম্প্রদায়ের উপর। সংসারে বাড়ছে অশান্তি। এবার গ্রাম্য এলাকায় চোলাই মদ বিক্রি বন্ধ করতে তৎপর হল প্রশাসন। চোলাই মদ বিক্রি করলে কী কী ক্ষতি হতে পারে সেই সব তুলে ধরা হয় সচেতনতা শিবিরে। আগামী দিনে আরও বেশী করে এমন সচেতনতা শিবিরের আয়োজন করা হবে বলে হিলির বিডিও সঞ্জয় সুব্বা জানিয়েছেন।




প্রসঙ্গত, গত ৯ই মার্চ পৌরাহার গ্রামের মকরামপুর এলাকার স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলারা চোলাই মদ ও জুয়া বন্ধের লিখিত আবেদন জানায় হিলি ব্লক বিডিওকে। এর ভিত্তিতেই বুধবার জনসাধারণকে সচেতন করতে মাঠে নামল হিলি ব্লকের বিডিও।




স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সদস্যা সরোজনী তপ্নো জানান, এলাকায় চোলাই মদ ও জুয়ার তাণ্ডব বেড়েই চলেছে। এর কবলে পড়ছে কিশোররাও। পুলিশ প্রশাসন কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করে না। ফলে বিডিও’র কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছিল। আফগারি দপ্তর রাত্রিতে টাকা নিতে যাওয়ায় সুবিধে হয় চোলাই মদ ও জুয়া কারবারীদের।




বিডিও সঞ্জয় সুব্বা বলেন, স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের এই সাহসী পদক্ষেপকে তিনি সাধুবাদ জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, প্রশাসন তাদের পাশে আছে। তাদের একসঙ্গে সংঘবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। তবে এই সমাজকে নেশার হাত থেকে মুক্ত করা যাবে।








You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!