সরকারি অ্যাম্বুলেন্সের পথ আটকে বিক্ষোভ




কুশমণ্ডি, ২৪ মে: রুগী আনতে যাওয়ার সময় সরকারি অ্যাম্বুলেন্স (১০২ ডায়াল) আটকে দিল বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স মালিকরা। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমণ্ডি গ্রামীণ হাসপাতালের ঘটনা। বিনামূল্যে পরিষেবা দেওয়া সরকারি অ্যাম্বুলেন্স আসার ফলে রুজি রোজগারে টান পড়েছে বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স চালক ও মালিকদের। এর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার হাসপাতালেই সরকারি অ্যাম্বুলেন্সগুলোকে আটকে দেওয়া হয়। শুধু সরকারি অ্যাম্বুলেন্স নয়, বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্সকেও রুগী নিয়ে আসা ও দিয়ে আসার জন্য কাজে লাগানো হোক, এই দাবি তুলেছেন আন্দোলনকারীরা। অন্যদিকে পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।




গত মার্চ মাসের ৭ তারিখ জিপিএস যুক্ত ১২টি সরকারি অ্যাম্বুলেন্স’এর শুভ সূচনা করেছিলেন বালুরঘাটের সাংসদ অর্পিতা ঘোষ। এর মধ্যে ৫টি করে অ্যাম্বুলেন্স থাকার কথা বালুরঘাট ও গঙ্গারামপুর হাসপাতালে এবং বাকি অ্যাম্বুলেন্সগুলি জেলার বিভিন্ন গ্রামীণ হাসপাতালে থাকবে বলে জানানো হয়েছিল।

দিন কয়েক আগে জেলার কুশমণ্ডি গ্রামীণ হাসপাতালে জিপিএস যুক্ত দুটি সরকারি অ্যাম্বুলেন্স আসে। এরপরই বেশিরভাগ সময় রুগী নিয়ে আসা বা দিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে পাঠানো হচ্ছে সরকারি অ্যাম্বুলেন্স। এতেই সমস্যায় পড়েছে বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্সের চালক ও মালিকরা। কুশমণ্ডি গ্রামীণ হাসপাতালে সব মিলিয়ে ৮-১০ টি বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। কিছুদিন আগে পর্যন্ত এই বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্সগুলি নিয়ে যেত রুগীদের। সরকারি অ্যাম্বুলেন্স আসার পর ভাড়া পাচ্ছেন না তাঁরা, ফলে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে তাঁদের।

অ্যাম্বুলেন্সের উপরই বেশ কয়েকজনের সংসার অতিবাহিত হয়। তাই রুজি রোজগারে টান পড়তেই এদিন সরকারি অ্যাম্বুলেন্সগুলিকে আটকে দেওয়া হয় হাসপাতালেই। প্রশাসনের তরফ থেকে কোনও ব্যবস্থা না নেওয়া হলে আরও বড় আন্দোলনে নামবেন বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তাঁরা।

এবিষয়ে বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্সের মালিক সাগর দাস জানান, ঝড়, বৃষ্টি যাই হোক, এতদিন পর্যন্ত রুগীদের বাড়ি পৌঁছে দেওয়া ও হাসপাতালে নিয়ে এসেছেন তাঁরাই। এর উপর নির্ভর করেই তাঁদের সংসার চলে ।হঠাৎ করে ১০২ লেখা অ্যাম্বুলেন্স আসে কুশমণ্ডি হাসপাতালে। ফলে তাঁদের ব্যবসায় ক্ষতি হতে শুরু হয়েছে। এর প্রতিবাদেই এদিন তাঁরা ১০২ লেখা অ্যাম্বুলেন্সগুলি আটকে দেন। পাশাপাশি জেলা প্রশাসনের কাছে আবেদন করেন পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখার। যদিও পুরো বিষয়টি সম্পর্কে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে বলে হাসপাতালের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।





You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!