সেলফি দিবসেই সেলফি’র বলি দিল্লি’র এক মহিলা




ওয়েব ডেস্ক: হাতে স্মার্টফোন রয়েছে অথচ সেলফি তোলেন না, এখনকার সময়ে এমন মানুষ প্রায় নেই বললেই চলে। কারণে-অকারণে সেলফি তোলাই এখন স্টেটাস। সেলফি ছাড়া যেন কিছু ভাবতেই পারে না স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা। আর এই সেলফি তুলতে গিয়ে বিপদের ঘটনাও নতুন কিছু নয়। ট্রেনের সামনে দাঁড়িয়ে, সমুদ্রে কিংবা পাহাড়ে সেলফি তোলার সময় বিপদে পড়তে হয়েছে অনেককেই।




বুধবার ওয়ার্ল্ড সেলফি ডে-তে প্রকাশ্যে এল রাজধানীর বাসিন্দা সরিতার মৃত্যুর ঘটনা। এমন দুর্ঘটনার সাক্ষী রইল মুম্বইয়ের মাথেরানের লুইসিয়া পয়েন্ট। স্বামী ও তিন সন্তানের সঙ্গে সেলফি তুলতে গিয়ে প্রায় ৫০০ফুট গভীর খাদে পড়ে গেলেন মহিলা।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের টানে মাথেরানে যান রাজধানীর বাসিন্দা সরিতা। সঙ্গে ছিলেন তার স্বামী ও তিন সন্তান। মঙ্গলবার লুইসিয়া পয়েন্টে যান তারা। পাহাড়ে উঠে সেলফি তুলতে শুরু করেন বছর তেত্রিশের সরিতা। দিব্যি প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য উপভোগ করছিলেন প্রত্যেকে। মুহূর্তের মধ্যেই চোখের সামনে থেকে উধাও হয়ে যান ওই মহিলা। কিন্তু কোথায় গেলেন তিনি! পরে দেখা যায়, পাহাড় থেকে পা পিছলে প্রায় ৫০০ফুট গভীর খাদে পড়ে যান তিনি। আনন্দ ক্ষণিকের মধ্যেই রূপ নেয় বিষাদে।

মাথেরান থানায় যান সরিতার স্বামী। গোটা ঘটনা পুলিশকে জানান তিনি। শুরু হয় সরিতার খোঁজে তল্লাশি। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সঞ্জয় পাতিল জানান, “বহুক্ষণ খোঁজাখুঁজির পর খাদ থেকে উদ্ধার হয় মহিলার নিথর দেহ। ময়নাতদন্ত রিপোর্টে সরিতার দেহে একাধিক ক্ষতচিহ্ন মিলেছে। ভেঙে গিয়েছে তার হাত, পা। গভীর চোট লেগেছে তার মাথাতেও। ময়নাতদন্তের পরই দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।”





error: Content is protected !!