স্লিপার কোচে মহিলাদের ৬টি লোয়ার বার্থ সংরক্ষণের ভাবনা রেলের




ওয়েবডেস্কঃ নারীদের কথা ভেবে এবার এক অন্যরকম পদক্ষেপ নিতে চলেছে রেল।এবার মহিলা যাত্রীদের জন্য সিট সংরক্ষণেও থাকছে নির্ধারিত কোটা। এবার প্রতিটি স্লিপার কোচে ছ’টি লোয়ার বার্থ নির্ধারিত থাকবে শুধু মহিলাদের জন্যই। এসি-টু এবং এসি-থ্রিতে থাকবে তিনটি লোয়ার বার্থ, যা ৪৫ বছরের উপরের মহিলাদের জন্য নির্ধারিত। তবে প্রসূতিরাও এই সুযোগ পাবেন নির্ধারিত প্রমাণপত্র দেখালে।





 

গরিব রথ এক্সপ্রেসেও এই সুযোগ থাকছে। এসি-থ্রি টায়ারের ছ’টি বার্থ থাকবে মহিলাদের জন্য নির্ধারিত। আগে আসার ভিত্তিতে এই সুযোগ মিলবে টিকিট কাটার সময়েই। তবে নির্ধারিত বার্থগুলি পূর্ণ না হলে ওয়েটিং লিস্টে থাকা মহিলারা প্রথমে এই সুযোগ পাবেন। কর্তব্যরত টিকিট পরীক্ষকই এই সুযোগ দিতে পারবেন। মহিলা যাত্রী না থাকলে প্রবীণরা প্রথম সেই সুযোগ পাবেন। এতকাল রেলে সিনিয়র সিটিজেন অর্থাৎ ৬০ বছর বা অনূর্ধ্ব ও সুপার সিনিয়র সিটিজেন ৮০ বছর বা অনূর্ধ্ব ও প্রতিবন্ধী যাত্রীদের জন্য নির্ধারিত কোটার ব্যবস্থা থাকলেও মহিলা যাত্রীদের কোটা এই প্রথম চালু হচ্ছে বলে রেল বোর্ড সূত্রে জানা গিয়েছে।




মহিলা যাত্রীদের এই বরাদ্দ কোটায় সাধারণের ক্ষেত্রে সংরক্ষণের সুযোগ কিছুটা কমে যাবে বলে মনে করেছেন যাত্রীরা। যদিও রেল তেমন আশঙ্কা করছে না। রেলকর্তাদের কথায়, আগে ট্রেনে ১৫ থেকে ১৭টি কোচ থাকতো এখন তা বেড়ে ২৪ কোচ হওয়ায় প্রচুর সিট বেড়েছে। ফলে মহিলাদের জন্য সিট সংরক্ষণে সাধারণ সংরক্ষণের ক্ষেত্রে তেমন প্রভাব পড়বে না। মহিলা যাত্রীদের এই সুযোগ দেওয়ার কারণ, মহিলাদের উন্নয়ন ব্যতীত সমাজের উন্নতি সম্ভব নয়। কেন্দ্র ‘বেটি পড়াও বেটি বাঁচাও’ বলে যে যোজনা ঘোষণা করেছে, তাতে রেলকে প্রাধান্য দিয়ে একাধিক পদক্ষেপ করা হয়েছে। শুধু মহিলা পরিচালিত রেল স্টেশন করা হয়েছে পশ্চিম রেলে। বহু স্টেশনে শুধু মহিলা পরিচালিত আরপিএফ ও জিআরপি থানা রয়েছে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু মহিলাকে নিয়োগ করা হয়েছে ট্রেন চালকের ভূমিকায়। দিঘা দুরন্ত এক্সপ্রেসে ইতিমধ্যে সবই মহিলা টিকিট পরীক্ষককে কাজে লাগানো হয়েছে। এবার নিরাপত্তা ব্যবস্থায় থাকবে সব মহিলা আরপিএফ। এমনকি ক্যাটারিংয়ের দায়িত্বেও থাকবে সব মহিলা।




দক্ষিণ-পূর্ব রেলের চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার জয়া সিনহা ভার্মা বলেন, “মহিলাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতেই এই ব্যবস্থা নিতে চলেছে রেল। পাশাপাশি মহিলারাও নিরাপদ মনে করবে পারিপার্শ্বিক পরিবেশকে।”








Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!