অন্ধকার চোখেও স্বপ্ন দেখে ওরা, মাধ্যমিক পরীক্ষায় কোচবিহারের দৃষ্টিহীন তিন বন্ধু







কোচবিহার, ১৩ মার্চ: অন্ধকার চোখেও স্বপ্ন দেখে ওরা। সেই স্বপ্নকেই অব্যাহত রাখতে বাকীদের মতো মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসেছে কোচবিহারের বিজয়, দেবব্রত ও জুলিয়াস। দৃষ্টিহীন তিন পরীক্ষার্থী কেউ শিক্ষক আবার কেউ কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার স্বপ্ন বুকে নিয়ে বসল মাধ্যমিক পরীক্ষায়। বাড়িতে অভাব, সেই সঙ্গে শারীরিক প্রতিবন্ধকতাও। জীবনের প্রতি পদক্ষেপে যাদের পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হয়, তাদের কাছে এই মাধ্যমিক পরীক্ষা কতটাই বা কঠিন হতে পারে!





 

জানা গিয়েছে, জেনকিন্স স্কুলের তিন পড়ুয়াকে রাইটার হিসেবে নিয়েছে তারা। তাদের পরীক্ষা কেন্দ্র রামকৃষ্ণ বয়েজ স্কুল। প্রথমদিনের বাংলা পরীক্ষায় ভালো নম্বর পাবে বলে আশাবাদী ওই তিন বন্ধু।




কোচবিহারের টাউন হাই স্কুলের ছাত্র বিজয় নায়েক আলিপুরদুয়ারের পাইটকাপাড়া চা বাগান এলাকার বাসিন্দা। বাবা মারা গেছেন ছোটবেলায়। মা চা বাগানের শ্রমিক। প্রতিবন্ধকতার কারণে বাড়ির অভাব মেটাতে মা-এর সাথে কাজে হাত লাগানো সম্ভব হয় নি তার। বিজয় চায় কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হতে। বিশেষ সফ্‌টওয়ারের মাধ্যমে কম্পিউটার চালাতে বেশ লাগে তার।




অন্যদিকে অন্দরান ফুলবাড়ির বাসিন্দা দেবব্রত সরকার। স্বপ্ন, একজন ভালো শিক্ষক হওয়ার। পাশাপাশি তার মতো যারা দৃষ্টিহীন তাদের পড়াতে চায় সে।




শ্রীরামপুরের জুলিয়াস মারান্ডি অবশ্য কী হতে চায় তা ঠিক করে ওঠে নি। তবে ভালো মানুষ হতে চায় সে। কোচবিহারের বাবুরহাটে এন ই এল সি অন্ধ বিদ্যালয়ে ক্লাস এইট পাস করে তিন বন্ধু এখন টাউন হাই স্কুলের ছাত্র। নিয়মিত প্রায় চার ঘন্টা করে পড়াশোনা করেছে সে।




শারীরিক প্রতিবন্ধকতা হারিয়ে দু’চোখের অন্ধকার পেড়িয়ে তারা জীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে এখন প্রতিনিয়ত লড়াই করে চলেছে। তাদের লক্ষ একটাই, প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে নিজেদের স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে যাওয়া।








You May Also Like

error: Content is protected !!