পুনরায় চালু হতে চলেছে আলিপুরদুয়ার ডিমডিমা চা বাগান




আলিপুরদুয়ার, ৭ মার্চঃ রাজ্য সরকারের প্রচেষ্টায় আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাট-বীরপাড়া ব্লকের বীরপাড়া শহর সংলগ্ন ডিমডিমা চা বাগান আগামী ৯ই মার্চ খুলবে, ফলে শ্রমিকদের মধ্যে এখন খুশির হাওয়া।





 

উল্লেখ্য, প্রায় ৩ বছর আগে মালিক পক্ষ বাগান বন্ধ করে দেওয়ার ফলে শ্রমিকরা সবাই কর্মহীন হয়ে পড়ে। দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকার জন্য অধিকাংশ শ্রমিক ভিন রাজ্যে পাড়ি দিয়েছেন। দীর্ঘদিন বাগান বন্ধ থাকার জন্য শ্রমিকদের মধ্যে অসন্তোষ দানা বেঁধেছে। বিভিন্ন সময়ে জন প্রতিনিধিদের সামনে তাদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন শ্রমিকেরা। এই বাগান খোলার ব্যাপারে সচেষ্ট হয়েছেন বর্তমান তৃণমূল সরকার।




সম্প্রতি কলকাতায় সর্বদলীয় বৈঠকে উপস্থিত হয়েছিলেন আলিপুরদুয়ার জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্ব ও তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। মাদারিহাট-বীরপাড়ার বিরোধী দলের বিধায়ক মনোজ টিগ্গা উপস্থিত হলেও তার ভূমিকা নিয়ে সমলোচনা করেছেন শাসক দলের একাংশ। বুধবার ডিমডিমা চা বাগান খোলার পূর্বে আলিপুরদুয়ার জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি মোহন শর্মা শ্রমিকদের মাঝে উপস্থিত হয়েছিলেন তাদের সঙ্গে খুশি ভাগ করে নেওয়ার জন্য।




ডিমডিমা বাজার মঞ্চ করে তৃণমূল চা বাগান মজদুর ইউনিয়নের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয় মোহন শর্মাকে। এছাড়াও উপস্হিত ছিলেন মাদারিহাট-বীরপাড়া ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি পদম লামা, ব্লক চা বাগান মজদুর ইউনিয়নের সভাপতি মান্নালাল জৈন সহ ব্লকের একাধিক নেতৃত্ব ও চা বাগানের শ্রমিক নেতারা।




মোহন শর্মা তার বক্তব্যের মাধ্যমে উপস্থিত সকলের সামনে চা বাগানের সার্বিক উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, আগামী শুক্রবার চা বাগান খোলার দিন মজুরির বকেয়া ৪০ শতাংশ প্রদান করা হবে। পরের দিন অর্থাৎ শনিবার জি আর হিসাবে ২৬০ টাকা প্রদান করা হবে। এটি ঘোষিত হওয়ার পর থেকেই উপস্থিত শ্রমিকদের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে।




অপরদিকে সংবাদমাধ্যমের দ্বারা শ্রমিকদের কষ্ট সবার সামনে তুলে ধরতে সক্ষম হওয়ায় সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদেরও ধন্যবাদ জানিয়েছেন মোহন শর্মা। এর পাশাপাশি তিনি বিরোধী দলের বিধায়ক মনোজ টিগ্গাকে তীব্র ভাষায় কটাক্ষ করেছেন। তিনি বলেন, বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকার চা বাগানের শ্রমিকদের নিয়ে কোনো প্রকার সুচিন্তা করেন নি, শুধু ভাষণ দিয়ে গেছেন, কাজের কাজ কিছুই করেন নি,সব নির্বাচনী চমক।




মোহন বাবু আরও বলেন, কেবলমাত্র জন দরদী মা মাটি মানুষের সরকারের জন্য আজ চা বাগানের শ্রমিকদের মুখে হাসি ফুটেছে। এমনকি উপস্হিত শ্রমিক ও শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের কোনোরকম প্ররোচণায় পা দিতেও বারণ করেছেন তিনি ।








You May Also Like

error: Content is protected !!