দরজায় কড়া নাড়ছে ২০১৯ এর লোকসভা ভোট




কলকাতা,০৮ নভেম্বর :-পি চিদম্বরম দরজায় কড়া নাড়ছে ২০১৯ এর লোকসভা ভোট। তার আগে উত্তর প্রদেশের মত বিজেপি দুর্গেও উপনির্বাচনে পর্যদুস্ত হতে হয়েছে গেরুয়া শিবিরকে। কর্ণাটকের উপনির্বাচনেও বিপর্যস্ত বিজেপি। বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির ঐক্যবদ্ধ লড়াইয়ের ফলেই এমন ফল হয়েছে বলে মত রাজনৈতিক ওয়াকিবহাল মহলের একাংশের। বৃহস্পতিবার বিধান ভবনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে রাজ্য ভিত্তিক জোটের পক্ষেই সওয়াল করলেন সর্বভারতীয় কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম।




বিজেপি বিরোধী দলগুলি আগামী লোকসভা নির্বাচনে রাজ্য ভিত্তিক জোট গড়ে নির্বাচনী ময়দানে নামার প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেন তিনি। তবে পশ্চিমবঙ্গে জোটের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে এআইসিসি, জানিয়ে দিলেন চিদম্বরম।

রাজস্থান, ছত্তিশগড় ও মধ্য প্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে সব দলই ব্যস্ত। এই তিন রাজ্যের ভোটের ফলের দিকে তাকিয়ে আছে গোটা দেশ। বিজেপি বিপর্যস্ত হলে তার প্রভাব ২০১৯ এর লোকসভা ভোটে পড়বে বলেই মত রাজনৈতিক ওয়াকিবহাল মহলের। এই তিন রাজ্য কংগ্রেসেরর নেতৃত্বেই সরকার গঠিত হবে বলে বৃহস্পতিবার জোরের সঙ্গে জানালেন পি চিদম্বরম।

নোটবন্দির দু’বছর পূর্ণ হল। আর এই দু’বছরে দেশের মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে। বিধান ভবনে সাংবাদিক সম্মেলন করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে এমনই গুরুতর অভিযোগ আনলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা এআইসিসি নেতা পি চিদম্বরম। বৃহস্পতিবার দেশের সব রাজ্যেই কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারা নোট বন্দির বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। কলকাতায় পি চিদম্বরম এদিন আরও বলেন নোটবন্দির পর ৯৯.৩ শতাংশ অর্থই রিজার্ভ ব্যাঙ্কে ফিরে এসেছে। দেশের মানুষের চরম বিপাকে ফলা হয়েছিল। লক্ষ লক্ষ মানুষের চাকরি যায় এর ফলে।

পরিকল্পনা করেই কেন্দ্রের মোদি সরকার নোটবন্দির রাস্তায় হেঁটেছিল বলে এদিন মন্তব্য করেন কংগ্রেসের এই সর্বভারতীয় নেতা। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যই এধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল বলে ইঙ্গিত করেন তিনি।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!