গভীর রাতে দুই চাষীর ১০ বিঘা জমির ধান পুড়ালো দুষ্কৃতীরা




মালদা, ২২ নভেম্বর:গভীর রাতে দুই চাষীর 10 বিঘা জমির ধান পুড়ালো দুষ্কৃতীরা। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাত দুটো নাগাদ হরিশ্চন্দ্রপুর-1নং ব্লকের তুলসিহাটা জিপির পশ্চিম কুস্তরিয়া গ্রামে। আগুন নেভানোর কাজে প্রথমে গ্রামবাসীরা হাত লাগিয়েও নিয়ন্ত্রনে আনতে পারেননি।খবর দেওয়া হয় হরিশ্চন্দ্রপুর দমকল বাহিনীকে। দমকল বাহিনী পৌঁছানোর আগেই প্রায় ধান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। খবর পেয়ে ছুটে আসে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ প্রশাসন।




চাষী দীপক সাহা জানান, প্রায় 10 দিন আগে শ্রমিকরা ধান কেটে জমিতে ফেলে রাখে। ধান গুলি শুকিয়ে গেলে জমির পাশেই এক আমবাগানে 10 বিঘা জমির ধান পালা করে রাখেন। বৃহস্পতিবার থেকে শ্রমিকদের ধান ঝাড়ার কথা থাকলেও তার আগেই দুষ্কৃতীরা গভীর রাতে তার সব ধানে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। এখন সারাবছর কিভাবে সংসার চালাবে তার চিন্তায় কপালে ভাঁজ পড়েছে।
দীপক সাহা আরো জানান, দুই ভাইয়ের ধান এক জায়গায় পালা করে রাখা ছিল। এলাহাবাদ ব্যাংক থেকে দেড় লক্ষ টাকা কেসিসি কৃষি লোন নিয়ে দুই ভাই দীপক সাহা ও দুলাল সাহা এবছর ধান লাগিয়েছিলেন। ধান বিক্রি করে ধারদেনা ও ঋণ শোধ করার কথা থাকলেও এখন কিভাবে ঋণ শোধ করবে তা ভেবে কোন কিনারা পাচ্ছেন না।

দীপক সাহা আরো জানান, এদিন শ্রমিকরা তার বাড়িতে ধান ঝাড়ার জন্য আসলে সেও শ্রমিকদের সঙ্গে আমবাগানে যায়। বাগানে আসতেই আগুন দেখে সে চমকে যাই। চারদিকে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ঠিক সেই সময় গ্রামের 4 দুষ্কৃতী আগুন লাগিয়ে পালাচ্ছিল। একজনকে গিয়ে দৌড়ে ধরে ফেলে।

বৃহস্পতিবার সকালে হরিশ্চন্দ্রপুর থানায় চার দুষ্কৃতীর নামে অভিযোগ করা হয়েছে। হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ এক দুষ্কৃতীকে ধরে থানায় নিয়ে আসে। হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয় কুমার দাস জানান, চাষী দীপক সাহা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। তার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে। একজনকে ধরা হয়েছে, 3 জন অধরা তাদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। অনুমান করা হচ্ছে আগুন লাগানোর আগে দুষ্কৃতীরা কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন লাগিয়েছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!