সাতসকালে দুর্গাপুরের সগরভাঙার ঘোষমার্কেটে ১ গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুকে ঘিরে উত্তেজনা




দুর্গাপুর,২১ অক্টোবর:সোমবার সাতসকালে দুর্গাপুরের সগরভাঙার ঘোষমার্কেটে এক গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুকে ঘিরে উত্তেজনা এলাকায়। ৭ বছর আগে বীরভূমের খুটঙা গ্রামের বছর চব্বিশের রুপা সরকারের বিয়ে হয়েছিল দুর্গাপুরের সগরভাঙ্গা ঘোষ মার্কেটের সব্যসাচী সরকারের সাথে। বিয়ের পর থেকেই সব্যসাচী তাদের মেয়ের ওপর নানারকম অত্যাচার চালাতো বলে অভিযোগ রুপার পরিবারের। স্বামী, শাশুড়ি আর শশুর একসাথে শ্বাসরোধ করে তাদের মেয়েকে খুন করেছে বলে অভিযোগ রুপার পরিবারের।




রুপার মায়ের অভিযোগ, অশান্তি চরমে ওঠে রবিবার, এইদিন বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ রুপা ফোন করে মাকে জানায় আবার মদ খেয়ে ঘরে অশান্তি শুরু করেছে  সব্যসাচী, এরপর থেকে মেয়ের খবর না পেয়ে উৎকণ্ঠা শুরু হয় রুপার পরিবারে। শেষ পর্যন্ত মৃতার শশুর বাড়ীর প্রতিবেশীরা তাদের ফোন করে মেয়ের মৃত্যুর খবর দেয় বলে রুপার কাকার অভিযোগ।

সোমবার সকালে প্রথম রুপার পরিবারের সদস্যরা সিউড়ি থেকে দুর্গাপুরের ঘোষ মার্কেটে মেয়ের শশুরবাড়িতে যায় ,সেখান থেকে রুপার পাঁচ বছরের মেয়েকে নিয়ে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে আসেন। অভিযুক্তদের বিশেষ করে রুপার স্বামীর ফাঁসির দাবী জানায় পরিবারের সদস্যরা। কোকওভেন থানার পুলিশ রুপার মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য দূর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠায়। রুপার স্বামী সব্যসাচী সরকারকে আটক করেছে কোকওভেন থানার পুলিশ। যদিও যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে রুপার শশুর ও শাশুড়ি।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!