বালিতে চাপা ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ উদ্ধার, খুনের অভিযোগে আটক দুই




পশ্চিম মেদিনীপুর,২২ ডিসেম্বর:বালিতে চাপা রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে এলাকায় চাঞ্চল্য। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান খুন করা হয়েছে , সন্দেহজনক  দুই জনকে আটক করে জিঞ্জাসা বাদ করছে পুলিশ। 




ঘটনাটি পশ্চিম মেদিনীপুরের গোয়ালতোড় থানার মাইতা এলাকার।মৃত যুবকের নাম সৌমেন রায়(২৫)মাইতা গ্রামের বাসিন্দা।জানায়ায় বৃহস্পতিবার  সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বেরোনোর পর আর বাড়ি ফেরেনি সৌমেন। রাতে পরিবারের লোক খোঁজাখুঁজি করেও সন্ধান মেলেনি। অবশেষে শুক্রবার সকালে গ্রাম লাগোয়া নদীতে এলাকাবাসী দেখেন নদীর পাশে পড়ে রয়েছে রক্তমাখা জামা প্যান্ড এবং কিছু যেন টেনে নিয়ে য়াওয়া হয়েছে নদীর বালির উপর। কিছুটা  দুরে  নদীর বালির মধ্যে গর্ত করে কিছু পোঁতা রয়েছে,এতেই সন্দেহ জোরালো হয় এলাকাবাসী দের।

খবর দেওয়া হয় গোয়ালতোড় থানায়,পুলিশ এসে বালি সরিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করলে এলাকাবাসীরা সনাক্ত করে  মৃত ব্যক্তি সৌমেন রায়। পুলিশ সুত্রে জানায়ায় শরীরের একাধিক জাগায় আঘাতের চিহ্ন ও ক্ষত বিক্ষত শরীর,পুলিশের প্রাথমিক অনুমান বেশ কয়েকজন মিলে খুন করা হয়েছে সৌমেনকে।

এই ঘটনায় তদন্তে নেমে পুলিশ দুই ব্যক্তিকে আটক করেছে।ধৃতদের একজনের নাম চান্দন মাঝি, মাইতা গ্রামের বাসিন্দা,পুলিশ জানায় চন্দনের জামায় রক্ত লেগেছিল, এতেই সন্দেহ জোরালো হয় । মৃতের বাবা কালিদাস রায় বলেন -আমার ছেলেকে খুন করা হয়েছে ।আমরা চাই পুলিশ তদন্তকরে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি দিক।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!