ইগোর সমস্যা, তালা বন্দি ১৮ শিক্ষক শিক্ষিকা




নদিয়া, ৮জুলাই: ফের অধ্যক্ষা বনাম কলেজের শিক্ষক শিক্ষিকাদের ইগো সমস্যা এবং কার্যত শত্রুতার ছবি নদিয়ার কৃষ্ণনগর উইমেন্স কলেজে অবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছায় যে, শিক্ষক শিক্ষিকাদের স্টাফ রুমে তালা লাগিয়ে দেন অধ্যক্ষা। সেই বন্ধ ঘরে আটকে থাকে ১৮ জন শিক্ষক শিক্ষিকাদের ব্যাগ সহ দরকারী সব জিনিসপত্র অধ্যক্ষা স্টাফ রুমের তালা না খোলায় রাত দশটা পর্যন্তও কলেজেই ক্লাশ রুমে বসেছিলেন ওই শিক্ষক শিক্ষিকারা তার মধ্যে একজন প্রতিবন্ধী শিক্ষকও ছিলেন। দুপক্ষ ই নাছোড় বান্দা শেষ পর্যন্ত খবর পেয়ে কলেজে ছুটে আসে পুলিশ।




তারা কথা অধ্যক্ষার সঙ্গে তাতেও হয়নি সুরাহা। অধ্যক্ষা নিজেও দশটা বাজার পড়েও বসেছিলেন নিজের অফিস ঘরে শুক্রবার এই পরিস্থিতির সুত্রপাত দুপুর থেকে শিক্ষক শিক্ষিকাদের অভিযোগ, অধ্যক্ষা বহুদিন ধরেই শিক্ষক শিক্ষিকাদের সঙ্গে সহযোগিতা করেন না এমনকি কোন শিক্ষক বা শিক্ষিকার বদলি বা প্রমোশন আটকে দিচ্ছেন নিজেও ঠিকমত কলেজে আসেন না। অসহযোগিতার কারণে কলেজের পড়াশুনার পরিবেশ নস্ট হচ্ছে।

তাই বাধ্য হয়ে সব শিক্ষক -শিক্ষিকারা একজোট হয়ে এদিন দুপরে অধ্যক্ষা এহেন আচরণের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী নিয়ে জেলাশাসকের সঙ্গে দেখা করে অভিযোগ জানান। শিক্ষকদের বক্তব্য ,তারা সামান্য সময়ের জন্য জেলা শাসকের কাছে যাওয়ার জন্য অধ্যক্ষা তাদের .স্টাফরুমে তালা লাগিয়ে দেন। ওই রুমে তাদের ব্যাগ সহ দরকারী কাগজপত্র রযেছে। রাত দশটা অবধিও অধ্যক্ষা তালা না খোলায় তারা অসহায় অবস্থায় কলেজে বসে রয়েছেন।

বাড়ি ফিরতে পারছেন না। যদিও অধ্যক্ষা মানবী বন্দোপাধ্যায়ের পাল্টা অভিযোগ ও বক্তব্য ,আমাকে না জানিয়ে শিক্ষক -শিক্ষিকারা কলেজের ক্লাস না নিয়ে কোথায় গিয়েছিলেন তা জানায়নি পড়ুয়াদের ক্ষতি হয়েছে। এইরকম দীর্ঘদিন ধরেই ওঁরা করছেন এসব মানা সম্ভব নয়।

ওঁরা উল্টে আমার বিরুদ্ধে জেলা শাসকের কাছে নালিশ জানাতে গিয়েছিলেন ক্লাস না করে,না জানিয়ে কলেজে দীর্ঘক্ষণ না থাকায় আমি স্টাফরুমে তালা মেরেছি সরকারের কাছে বেতন নিয়ে কাজ না করার মানসিকতা বরদাস্ত হবে না। কলেজ সুত্রে খবর রাত সাড়ে দশটার পড়েও  শিক্ষক -শিক্ষিকা বনাম অধ্যক্ষার ইগোর লড়াই জারি ছিল।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!