মাওবাদী হামলায় নিহত CRPF জওয়ানকে গান স্যালুটে শেষ বিদায়




বেলডাঙ্গা, ১২জুলাই: ঝাড়খণ্ডের ডিলুডিতে মাওবাদী হামলায় নিহত সিআরপিএফ জওয়ান নির্মল ঘোষের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় বৃহস্পতিবার সকালে বেলডাঙ্গার মহুলা হালালপুর শ্মশানঘাটে। বৃহস্পতিবার সকালে নিহত সিআরপিএফ জওয়ানের মৃতদেহ মহুলা গ্রামে এসে পৌছায় সিআরপিএফের গাড়িতে। উল্লেখ্য গত বুধবার সকালে ঝাড়খন্ডের ডিলুডিতে মাও হামলায় নিহত হয় মুর্শিদাবাদের বেলডাঙ্গা থানার মহুলা গ্রামের বাসিন্দা নির্মল ঘোষ। বুধবার সকালে সিআরপিএফের জওয়ান নির্মল ঘোষের মৃত্যুর খবর পাওয়ার পরে থেকেই পরিবার ও গ্রামবাসীরা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকে তাদের প্রিয়জনের দেহ হাতে পাওয়ার জন্য। গ্রামবাসীরা রাস্তার মোড় থেকে কফিনবন্দি জওয়ানের মৃতদেহ কাঁধে নিয়ে বাড়িতে পৌছায়।




নিহত জওয়ানকে শেষ বারের মতো দেখার জন্য মহুলা সহ বেলডাঙ্গা থানার বিভিন্ন গ্রামের হাজার হাজার মানুষ মহুলা গ্রামে সকাল থেকেই দাঁড়িয়ে ছিল। রাস্তার দুপাশে বাড়ির ছাদে মানুষের ভিড়ে পা রাখার জায়গা ছিল না। মৃতদেহ বাড়িতে পৌছাতেই মা- ভাগ্যবতী ঘোষ, বাবা- নারায়ন ঘোষ, স্ত্রী- মামনি ঘোষ এবং আত্মীয়রা কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে। গ্রামবাসীরা এবং উপস্থিত লোকেরা তাদের চোখের জল ধরে রাখতে পারে নি।

মা বাবা ও স্ত্রী তাদের প্রিয় মানুষটিকে শেষ বারের মতো স্পর্শ করে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে। এরপরেই কফিনবন্দি মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় বিবেকানন্দ ক্লাবের পিছনের একটি জমিতে। সেখানে প্রায় ১৫হাজার মানুষের চোখের জলে মৃত জওয়ানকে শেষ শ্রদ্ধার্ঘ্য জানানো হয়। সিআরপিএফ এর ডিজি ডি. এস. লাক্ষা, জেলা পুলিস সুপার শ্রী মুকেশ ফুলের স্তবক দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানান। এরপরে কফিনবন্দি মৃতদেহ মহুলা হালালপুর শ্মশানঘাটে নিয়ে গিয়ে সিআরপিএফ এর জওয়ানরা গান স্যালুট দিয়ে শেষ বিদায় জানান।




You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!