ইটাহারে শুরু হল ৪০০বছর পুরানো ঐতিহ্যবাহী স্বামীনাথ মেলা




ইটাহার, ৩০ এপ্রিল: ৪০০ বছর পুরানো ঐতিহ্যবাহী স্বামীনাথ মেলা শুরু হল ইটাহারে। উল্লেখ্য, তৎকালীন ইটাহার থানার চুড়ামণের জমিদার কৃষ্ণ চন্দ্র রায়চৌধুরী সপ্নাদেশে পেয়ে স্বামীনাথ পূজার সূচনা করেন ইটাহার থানার দুর্গাপুর অঞ্চলের হাসুয়া গ্রামে।




তারপর তার ছেলে ভূপাল চন্দ্র রায় চৌধুরী এই পূজা করেন দীর্ঘ দিন ধরে। তবে বর্তমানে জমিদারি প্রথা ও জমিদার না থাকলেও ভূপাল চন্দ্র রায় চৌধুরীর ছেলে পার্থ রায় চৌধুরীরা, সিদ্ধার্থ রায় চৌধুরী, অভিশেখ রায় চৌধুরী সহ অনেকে এই পূজা চালিয়ে যাচ্ছেন যথাযত নিয়ম আর্চার মেনে। তবে বছরের প্রতিদিন নিয়ম মাফিক পূজা অর্চনা মন্দিরে করা হলেও বছরের বাৎষরিক পূজা বৈশাখ মাসের বুদ্ধ পূর্ণিমায় হয়।

রবিবার থেকে শুরু হল স্বামীনাথের চার দিন ব্যাপী বিরাট মেলা। মেলাকে ঘিরে মেলা প্রাঙ্গণে বিভিন্ন রকমারি দোকান, নাগর দোলা, যাত্রা পালা সহ মুখরচক খাবারের দোকান পাট বসে ফলে মেলা কে ঘিরে উত্তর দিনাজপুর জেলার সহ অন্যান্য পাশ্ববর্তী রাজ্য বিহার থেকে বহু ভক্ত আসেন। এই বংশের সবাই থাকেন কলকাতাতে। পূজার আগের দিন বংশের সকলে নিজ বাসস্থান দূর্গাপুর রাজবাড়িতে এসে পূজা করে আবার বাড়ি ফিরে যান। চূড়ামণে তাদের রাজবাড়ি এখন প্রায় ধ্বংসস্তুপ। কিন্তু দুর্গাপুরে তাদের রাজবাড়ি এখনও আছে।

মন্দিরের পুরহিত প্রশান্ত চ্যাটার্জী বলেন, বহু ভক্তের মানস কামনায় পুজো দিতে আসেন এই স্বামীনাথ দেবতার কাছে। তবে বেশির ভাগ লোক সন্তান লাভের জন্য আসেন ও তা পূর্ণও হয় দেবতার আর্শিবাদে। তবে মেলার দেখভাল করেন পুজো কমিটির সঙ্গে পুলিশ প্রশাসন, বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, পাশাপাশি ভূপাল চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের এন সি সির ছাত্ররা।

তবে মেলা প্রাঙ্গনে সাধারণ মানুষের জন্য পানীয় জলের ব্যবস্থা করেন এলাকার ও রায়গঞ্জের অবসর প্রাপ্ত পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী লোকেরা। তবে এবারেই প্রথম মেলাতে আসা সাধারণ মানুষের জন্য অস্থায়ী শৌচালয়ের ব্যবস্থা করেন রায়গঞ্জ পৌরসভার তরফে ফলে খুশি পূজা কমিটি। তবে মেলাকে ঘিরে মেলা প্রাঙ্গণে পুলিশ পিকেট বসানো হয়েছে। স্বামীনাথের মেলাকে ঘিরে জমিদারের আত্মীয় সজনরা বাইরে থাকলেও পুজোর সময়ে দুর্গাপুর ভূপালপুর জমিদারের আদিবারিতেই আসেন। হাজার হাজার মানুষের ঢল নামে মেলা প্রাঙ্গণে।

মেলা প্রাঙ্গণে পুলিশি ব্যাবস্থা ছিল চোখে পড়ার মতো।




You May Also Like

error: Content is protected !!