কিশোরের মাথায় হাসুয়ার কোপ বসাল বাবা







মালদা, ১ এপ্রিল: কিশোরের মাথায় হাসুয়ার কোপ বসাল মানসিক ভারসাম্যহীন বাবা। হাসুয়ার কোপে ডান চোখের দৃষ্টি হারাতে বসেছে নাবালক ছেলে। আক্রান্ত কিশোর বর্তমানে চিকিৎসাধীন মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার মোথাবাড়ি থানার শ্রীপুর গ্রামে।





আক্রান্ত ছাত্রের নাম সুমন মণ্ডল(১৩)। স্থানীয় যুগলটোলা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণিতে পড়াশোনা করে। অভিযুক্ত বাবার নাম নন্দলাল মণ্ডল। সামান্য মানসিক ভারসাম্যহীন। আক্রান্ত কিশোরের অভিযোগ, শনিবার রাতে বাবা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছিল বাড়িতে। বাবার এই গালিগালাজে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠছিল প্রতিবেশিরা। তাই বাবাকে চুপ করতে বলে ছেলে সুমন। তারপরই ধারালো অস্ত্র নিয়ে বাবা হামলা করে ছেলের উপর। হাসুয়ার আঘাত লাগে ছেলের মাথায়। প্রতিবেশিরা তৎক্ষণাৎ আক্রান্ত ছেলেকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও রাতেই স্থানান্তর করা হয় মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। ছেলের মাথায় আটটি সেলাই পড়েছে সঙ্গে ডান চোখে আঘাত রয়েছে। কার্যত ডান চোখে খুলছেই না ছেলের।




এদিকে বাবা নন্দলালের এমন আচরনে আতঙ্কিত পরিবার সহ গ্রামবাসী। অর্থের অভাবে নন্দলালের চিকিৎসা করাতে পারছেনা পরিবার বলে জানা গিয়েছে। মানসিক ভারসাম্যহীন হলেও স্বামী, তাই স্বামীর বিরুদ্ধে কোনও মন্তব্য করতে চাননি স্ত্রী সবিতা মণ্ডল। যদিও ঘটনায় এখনও পুলিশের কাছে কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি।




You May Also Like

error: Content is protected !!