সহবাসে অন্তঃসত্ত্বা যুবতীকে বিয়ে করতে অস্বীকার— গ্রেপ্তার যুবক




বালুরঘাট, ১৭ ফেব্রুয়ারিঃ এক যুবতীকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একাধিকাবার সহবাস করার অভিযোগ উঠল অজয় তপ্নো বলে এক যুবকের বিরুদ্ধে। এদিকে ওই যুবতী বর্তমানে পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানা গেছে। অভিযোগ পেতেই গতকাল গভীর রাতে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বালুরঘাট থানার চকভৃগু গ্রাম পঞ্চায়েতের কুয়ারণ এলাকার ঘটনা। নির্যাতিতা যুবতীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।





 

জানা গিয়েছে, সীমা উরাও(পরিবর্তিত নাম) নামে ওই যুবতীর বয়স ২৩ বছর। বাড়ি বালুরঘাট থানার চকভৃগু গ্রাম পঞ্চায়েতের কুয়ারণ এলাকায়। অনেক দিন আগেই সে পড়াশুনা ছেড়ে দিয়েছে। এদিকে অজয় তপ্নো এবার মাধ্যমিক পরীক্ষা দেবে। বালুরঘাটের নামাবঙ্গী এলাকার জেলপি হাই স্কুলের ছাত্র সে। মধ্যমিকে অকৃতকার্য হওয়ায় এবার সে ফের মাধ্যমিক দিচ্ছিল। অজয়ের বাড়ি পাশের গ্রাম মোস্তাফাপুর এলাকায়। সীমা ও অজয়ের মধ্যে সম্পর্ক দীর্ঘ দিনের। তাদের মধ্যে ভালবাসার সম্পর্ক ছিল।




এদিকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিকবার সহবাস করে অজয়। বর্তমানে ওই যুবতি পাঁচ মাসে অন্তঃসত্ত্বা। বিষয়টি জানাজানি হতেই বিয়ের করার মত পালটায় অজয় বলে অভিযোগ। বিয়ের জন্য যুবতীর পরিবারের তরফ থেকে অজয়ের বাড়িও যায়। সেখানে তাদের অপমান করা হয়। এর পরই গতকাল বালুরঘাট থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ পেয়েই গতকাল রাতে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বালুরঘাট থানার পুলিশ। অন্য দিকে অভিযোগ অস্বীকার করেছে অভিযুক্ত যুবক।




এবিষয়ে নির্যাতিতা যুবতীর মা জানান, তার মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল অজয়ের। মেয়ে বর্তমানে অন্তঃসত্ত্বা। বিষয়টি জানতে পেরে বিয়ের কথা বলতে যান তিনি। সেখানে অজয়ের পরিবার তাদের অপমানিত করেন। এরপরই তারা বালুরঘাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।




এবিষয়ে বালুরঘাট থানার আইসি সঞ্জয় ঘোষ জানান, ধর্ষণের অভিযোগ পেয়েই অভিযুক্ত অজয় তপ্নোকে গ্রেপ্তার করা হয়। আগামীকাল তাকে আদালতে পাঠানো হবে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে বলে সঞ্জয়বাবু জানিয়েছেন।







error: Content is protected !!