দক্ষিণ দিনাজপুর জুড়ে বিরোধীদের তাণ্ডব




বালুরঘাট, ১৪ মে: পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা জুড়ে বাম বিজেপির তান্ডব। ব্যালট বক্স থেকে তৃণমূল কর্মী সমর্থকের মোটর বাইক পুড়িয়ে দেয় বিজেপি। একাধিক তৃণমূল কর্মী সমর্থককে মারধোরের অভিযোগ বাম বিজেপির বিরুদ্ধে। সারা জেলা জুড়ে সন্ধ্যে অবধি গ্রেপ্তার ২২। এদিকে জেলার আটটি ব্লকেই বেশির ভাগ বুথেই ৫ টার পরও ভিড় থাকায় ভোট গ্রহণ পর্ব চলে। বিকেল পাঁচটা অবধি ভোট পড়ে ৬৬ শতাংশ।





দক্ষিণ দিনাজপুরে পঞ্চায়েত নির্বাচনের জন্য ১৩০০ বন্দুকধারী পুলিশ ও ৪৪৫০ সিভিক ভলান্টিয়ার মোতায়েন করা হয়। নির্বাচনের জন্য ৬৮৮২ ভোট কর্মী নিযুক্ত করা হয়। ভোটের জন্য ৯৫৮ টি গাড়ি ব্যবহার করা হয়। দক্ষিণ দিনাজপুর পঞ্চায়েত নির্বাচনে জেলা পরিষদের আসন ১৮ টি। ৮ টি পঞ্চায়েত সমিতির মোট আসন ১৮৭ টি। ৬৪ টি গ্রাম পঞ্চায়েতের মোট আসন ৯৭৫ টি। মোট ১১৩৪ টি বুথ রয়েছে।


এছাড়াও অতিরিক্ত বুথের সংখ্যা ১৩ টি। মোট ভোটার ১০,৫৫,৩৭৬ জন। যার মধ্যে পুরুষ ৫,৪৬,৪৪৬ এবং মহিলা ৫,০৮,৮৯৬ জন। তৃতীয় লিঙ্গ ৩৪ জন। এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে জেলা পরিষদে ৯৩ জন প্রার্থী লড়াই করছেন। পঞ্চায়েত সমিতিতে ৬৫৯ জন ও গ্রাম পঞ্চায়েতে ৩০৮১ জন প্রার্থী লড়াই করছে। ভোট শুরু কিছু পরেই জেলা জুড়ে দাপিয়ে বেড়ায় বাম বিজেপি। বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূল কর্মীদের উপর হামলা চালায়। বালুরঘাটের খাসপুর এলাকায় তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের উপর হামলা ও মোটর বাইকে আগুন লাগিয়ে দেয়। ভেঙে দেওয়া হয় গাড়ি। এরপর গঙ্গারামপুর ব্লকের জাহাঙ্গীরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিদায়ী তৃণমূল কংগ্রেসের প্রধান ধীরেন্দ্রনাথ সরকারের উপর বাম কর্মী সমর্থকরা হামলা চালায়। গুরুত্বর আহত হন তিনি।


তপনের রামপুর এলাকায় ব্যালট বক্স পুড়িয়ে দেওয়া হয়। অভিযোগ বিজেপির দিকে। বুথ থেকে ব্যালট বক্স ছিনতাই করে জাতীয় সড়কের নিয়ে গিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। এমনকি পথ অবরোধ করে তারা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। পুলিশ লাঠি চার্জ করে পথ অবরোধ তুলে দেয়। গোটা জেলায় ৩০ জনের বেশি তৃণমূল কর্মী আহত হয় বলে জানা গেছে।


এবিষয়ে সাংসদ তথা তৃণমূল নেত্রী অর্পিতা ঘোষ জানান, তাদের কর্মীদের উপর হামলা থেকে গাড়িতে আগুন লাগিয়েছে বিজেপির লোকজন। রামপুরে ব্যালট বক্স ছিনতাই করে আগুন লাগিয়ে দেয় বিজেপি। মানুষকে জোর করে ভোট দেওয়ানোর চেষ্টা করেছে বিজেপি। তবে মানুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট দিয়েছে। এবং এবারও জেলা পরিষদ, গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে পঞ্চায়েত সমিতিতে তারা জয়ী হবেন।





You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!