পাওয়না টাকা চাইতে গিয়ে প্রতিবেশীর হাতে আক্রান্ত,মহিলা সহ ৩ জন




মালদা,১৪ সেপ্টেম্বর:-পাওয়না টাকা চাইতে গিয়ে প্রতিবেশীর হাতে আক্রান্ত হলেন এক পরিবারের মহিলা সহ তিন জন। বৃহস্পতিবার রাতে মালদহের ইংরেজবাজার শহরের কুলদীপ মিশ্র কলোনিতে ঘটনাটি ঘটেছে৷আহতদের মধ্যে এক জন গুরুতর জখম আবস্থায় মালদহ মেডিকেলে চিকিৎসাধীন৷ তবে এই ঘটনায় এখনও পুলিশে কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি৷




স্থানীয় ও পরিবার সুত্রে জানা গিয়েছে শহরের কুলদীপ মিশ্র কলোনির বাসিন্দা দিলীপ দাস৷ দিলীপবাবু পেশায় কাঠমিস্ত্রি৷ তাঁর ছেলে তরুণ দাসও একই পেশায় যুক্ত৷ অভিযোগ, প্রায় ৬ বছর আগে দিলীপবাবুরা এলাকারই এক বাসিন্দা দুলাল দাসের বাড়িতে কাঠের কিছু কাজ করেছিলেন৷ সেই কাজের ছয় হাজার টাকা এখন বাকী রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে সেই বকেয়া টাকা চাইতে ফের দুলালের বাড়ি যান দিলীপবাবুর স্ত্রী পূর্ণিমাদেবী৷ অভিযোগ বকেয়া টাকা চাইলে দুলাল ও তার বাড়ির লোকজন নাকি তাঁকে মারধর করে গলা ধাক্কা দিয়ে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়৷ কাজ সেরে সন্ধেয় স্বামী ঘরে ফিরে এলে পূর্ণিমাদেবী তাঁকে সব খুলে বলেন৷ ঘটনা জানতে পেরেই দুলালের বাড়িতে যান দিলীপবাবু৷

তিনি প্রতিবাদ করলে তাঁকে মারধর শুরু করে দুলাল ও তার দুই ছেলে গোপি ও কিষাণ৷ ঘটনাটি জানতে পেরে বাবাকে বাঁচাতে দুলালের বাড়িতে ছুটে যান তরুণ৷ সেই সময় ইট দিয়ে তাঁর মাথার পিছনে মারা হয় বলে অভিযোগ৷ এলাকার বাসিন্দারা দ্রুত তরুণকে মালদা মেডিকেল কেলেজে ভরতি করেন৷ বর্তমানে তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন৷




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!