পঞ্চায়েত গঠনের আগে তৃনমূলের জয়ী সদস্যকে অপহরণের অভিযোগ মূল তৃনমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে




দক্ষিণ ২৪ পরগনা,২০ আগস্ট:ক্যানিং থানার গোপালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কুলাঘরানি গ্রামের ঘটনা। রবিবার গভীর রাতে অপহরণের ঘটনা ঘটে। গোপালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কুলাঘরানির তৃনমূল সদস্য নন্দ কিশোর সরদারকে অপহরণ করা হয় বলে অভিযোগ। তাদের দাবী এই পঞ্চায়েতে মোট ১৮ টি আশন আছে তার মধ্যে নয়জন সদস্য মূল তৃনমূল এর সমর্থক অপর দিকে অন্য নয়জন সমর্থক যুব তৃনমূল সমর্থক।




এই পঞ্চায়েত মূল তৃনমূল কর্মীরা দখল করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে তাই রাতের অন্ধকারে যুব তৃনমূল সমর্থক সদস্য নন্দ কিশোরকে মারধোর করে বুকে বন্দুক থেকে তুলে নিয়ে গেছে মূল তৃনমূল কর্মীরা। এদিন সকালে এই ঘটনায় এলাকার মূল তৃনমূল কর্মীদের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে নন্দ কিশোরের স্ত্রী সাগরিকা সরদার। তার দাবী আমার স্বামী ভোটে জেতার পর থেকে মূল তৃনমূল নেতা শৈবাল লাহিড়ীর অনুগামীরা তাদের সমর্থন করার জন্য চাপ দিচ্ছিল। আতঙ্কে আমার স্বামী পালিয়ে গিয়েছিলো বাড়ি থেকে। পরে শাশুড়ি মা মারা গেলে বাড়ি আশে নন্দ কিশোর।

গতকাল মায়ের পারলৌকিক কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। আজ সামাজিক অনুষ্ঠান ছিল। কিন্তু গত রাত দুটো নাগাদ একদল দুষ্কৃতী এসে বুকে বন্দুক ঠেকিয়ে তুলে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় ফের তৃনমূলের গোষ্ঠী দণ্ড প্রকাশে চলে এলো। যদিয়ও শৈবাল লাহিড়ী বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছে তিনি আরও জানান এটা একটা ষড়যন্ত্র। যুব তৃনমূলের নাম নাকরে তিনি বলেন এলাকায় যারা নির্দল বা বিরোধী কারছে তারায় এইসব করছে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ক্যানিং থানার পুলিশ।




You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!