আত্মসমর্পণ করার পর জামিন পেলেন ঋতব্রত ব্যানার্জি বালুরঘাট আদালতে




বালুরঘাট,২৭ নভেম্বরঃ ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত রাজ্য সভার সংসদ ঋতব্রত ব্যানার্জি সোমবার বালুরঘাট আদালতে আত্মসমর্পণ করার পর জামিন পেলেন। আগের শর্তেই ঋতব্রতকে জামিন দেওয়া হয় এদিনও। অন্য দিকে নম্রতা দত্তের করা দ্বিতীয় অভিযোগেরও এদিন শুনানি ছিল। অসম্পুর্ণ মামলা হওয়ায় সেই মামলার আগাম জামিন পান ঋতব্রত ও তার স্ত্রী দুর্বা ব্যানার্জি সেন। এদিন ঋতব্রতের সঙ্গে ছিলেন তার আইনজীবীরা। এদিকে আদালত চত্বরে কোন রকম অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে তার জন্য বিশাল পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছিল। কড়া নিরাপত্তা বলয়ের মাধ্যে ঋতব্রতে আদালতে তোলা হয়।





অন্যদিকে আদালতে সঠিক তথ্য না দেওয়া ও হুমকি দেখানোয় নম্রতা দত্ত ফের ঋতব্রত, দুর্বা, অর্চনা মজুমদার ও মুকুল রায়ের নামে অভিযোগ দায়ের করেন। সেই মামলার প্রথম শুনানি ছিল গত ১৭ নভেম্বর। হাতে সময় কম থাকায় মামলার তদন্ত করতে পারেনি তদন্তকারি সংস্থা সিআইডি। তদন্তের জন্য আদালতের কাছ থেকে সময় চেয়ে নেয় তদন্তকারি সংস্থা। ঋতব্রতের বিরুদ্ধে হওয়া সেই দ্বিতীয় মামলার শুনানি ছিল এদিন বালুরঘাট সেশন কোর্টে। অসম্পূর্ণ মামলা থাকায় ঋতব্রত ব্যানার্জি ও তার স্ত্রী দুর্বা ব্যানার্জি(সেন) এর আগাম জামিন মঞ্জুর করে বিচারক। ফলে দুটি মামলায় আপাতত খানিকটা স্বস্তিতে রয়েছেন রাজ্য সভার সাংসদ।

এবিষয়ে ঋতব্রতের আইনজীবী অনির্বাণ গুহঠাকুরতা জানান, ধর্ষণ মামলায় আদালত ২১ দিনের মধ্যে তার মক্কেল ঋতব্রত ব্যানার্জিকে হাজির হতে বলেছিলেন। সেই মত এদিন তিনি হাজির হন এবং ফের জামিন পান আগের শর্ত স্বপেক্ষেই। এছাড়াও ঋতব্রত ব্যানার্জির বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া দ্বিতীয় মামলার শুনানি ছিল এদিন। অসম্পূর্ণ মামলা হওয়ার দরুন সেই ঋতব্রত ও তার স্ত্রী দুর্বা ব্যানার্জি সেনের আগাম জামিন মঞ্জুর করেন বিচারক।

অন্য দিকে এবিষয়ে সিজিএম কোর্টের এপিপি(সরকারি আইনিজীবী) জয়ন্ত মজুমদার জানান, সেশন কোর্টে তিনি আগাম জামিন আগেই পেয়েছিলেন। এদিন সিজিএম আদালতে যথা সময়ে হাজিরা হওয়ার ফের জামিন পান।





You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!