নাবালিকাকে বাড়িতে আটকে রেখে পাচার ও ধর্ষনের চেস্টার অভিযোগ




দক্ষিন 24 পরগনার, ৫ আগস্ট:এক নাবালিকাকে কাজের লোভ দেখিয়ে বাড়িতে নিয়ে এসে আটকে রেখে পাচারের চেস্টার অভিযোগ উঠলো এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিন 24 পরগনার ক্যানিং থানার জনকল্যান মোড় এলাকায়। বাড়িতে আটকে রেখে মারধরের পাশাপাশি তাকে ধর্ষনের চেস্টাও করে অভিযুক্ত। শনিবার রাতে কোনরকমে সেখান থেকে পালিয়ে প্রানে বাঁচে ওই নাবালিকা। অবশেষে গুরুতর অসুস্হ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত ব্যক্তির খোঁজে তল্লাশির পাশাপাশি ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ক্যানিং থানার পুলিশ।




নদিয়া জেলার চাপলা থানার পারুইগাছি গ্রামের বাসিন্দা বছর সতেরোর ওই কিশোরীর উপর তার সত মা সবসময় অত্যাচার করতো, মারধোর ও করতো। দিন কয়েক আগে মারধর করে দীপা হালদার নামে ওই কিশোরীকে বাড়ি থেকে বের করে দেয় বলে অভিযোগ। বাড়ি থেকে বেরিয়ে এদিক ওদিক ঘুরতে ঘুরতে শিয়ালদহ স্টেশনে চলে আসে। সেখানে এক ব্যক্তির সাথে পরিচয় হলে তাকে সে সব খুলে বলে। ওই কিশোরীকে কাজের ব্যবস্থা করে দেবে বলে তাকে এই ক্যানিং থানার তালদি এলাকায় একটি barite.নিয়ে আসে ওই সন্দেহভাজন ব্যক্তি।

এখানে এনে গত পাঁচদিন যাবৎ আটকে রেখে তাকে বাইরে বিক্রি করে দেওয়ার চেস্টা করছিলো বলে অভিযোগ। কয়েকদিন এখানে থাকার পর ওই কিশোরী বাড়ি ফিরতে চাইলে তাকে শনিবার বেধড়ক মারধর করে ও ধর্ষনের চেস্টা করে বলে অভিযোগ। কোনরকমে শনিবার রাত নটা নাগাদ সেখান থেকে পালিয়ে জনকল্যাণ মোড়ে এসে ওই কিশোরী স্থানীয় মানুষদের কাছে সাহায্য চান। তখনই স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে ক্যানিং থানার পুলিশ তাকে উদ্ধার করে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসার জন্য। অভিযুক্ত ব্যক্তির খোঁজে তল্লাশি করছে পুলিশ।




You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!