বসতভিটা দখলকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের সংঘর্ষের জেরে কলেজ ছাত্রী সহ জখম হল ৩




কলকাতা,৭ সেপ্টেম্বর:বসতভিটা দখলকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের সংঘর্ষের জেরে কলেজ ছাত্রী সহ জখম হল তিন জন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পুরাতন মালদহের মুচিয়া পঞ্চায়েতের মনহরপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। আহতদের মধ্যে এক জন গুরুতর জখম অবস্থায় মালদহ মেডিকেলে চিকিৎসাধীন। মালদহ থানায় অভিযোগ জানালে তদন্তে নামে পুলিশ।




পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্তরা হলেন নবকান্ত দাস(৪৫), চায়না রানী দাস(৪০) এবং কলেজ ছাত্রী অনুপমা দাস(১৯)। জানা গিয়েছে, নবকান্ত দাসের দশ শতক একটি বসতভিটা রয়েছে। সেই বসতভিটা দখল করার চেষ্টা করে তার ভাই প্রশান্ত দাস। এই নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে তাদের মধ্যে বচসা চলছিল।  বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এই নিয়ে আবার শুরু হয় দুই পরিবারের মধ্যে বচসা।

অভিযোগ বচসা চলাকালীন প্রশান্ত দাস ও তার পরিবারের লোকেরা লোহার শাবল লাঠি সোটা নিয়ে চড়াও হয় দাদার পরিবারের উপর। শাবলের আঘাতে মাথা ফেটে যায় নবকান্ত দাসের।স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হন স্ত্রী এবং তাদের কলেজ পড়ুয়া মেয়ে। এরপর আহত অবস্থায় তিনজনকেই ভর্তি করা হয় মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

সেখান থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা করার পর দুজনকে ছেড়ে দিলেও মাথায় গুরুতর আঘাত নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি নবকান্ত দাস। অভিযুক্ত প্রশান্ত দাস সহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মালদহ থানায় অভিযোগ জানালে তদন্তে নামে পুলিশ। তবে ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা পলাতক। 




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!