জগদ্ধাত্রী পুজোর উদ্ধোধন এ মেদিনীপুর শহরে তৃনমূল বিজেপি কে ১০ গোল দিয়েছে




পশ্চিম মেদিনীপুর,১৬ নভেম্বর:এবারের দূর্গা পূজার উদ্ধোধন থেকে জগদ্ধাত্রী পুজোর উদ্ধোধন পর্যন্ত সব ক্ষেত্রেই জনসংযোগ এ তৃণমূল এগিয়ে। তা হলে ও সাধারণ মানুষের পাশাপাশি দলের মধ্যেও গুঞ্জন উঠেছে শহরে কি নেতার অভাব, যেখানে চার থেকে পাঁচ জন বিধায়ক এর বাসস্থান শহরের মধ্যে। এমনকি জেলা পরিষদের সভাধিপতি যিনি প্রতি মন্ত্রী র মর্যাদা পান তিনি ও ডাক পান না। তাঁর অফিস জেলা সদরে ই।




তার মানে কি এই সব জন প্রতিনিধি রা দলের কাছে ব্রাত্য। ইনারা তখন ই ডাক পান কলকাতা থেকে কোনো নেতা বা মন্ত্রী এলে । আর উদ্বোধকবৃন্দ শহরের নেতা না খুঁজে পেয়ে বড় বড় নেতা মন্ত্রী আনায় ব্যাস্ত এবং এলাকাবাসীর কাছে নিজেদেরকে জাহির করে দেখ আমি এই নেতার গ্ৰুপের কাছের মানুষ। আমার পদ টি ঠিক থাকবে। দুদিন আগে অভিষেক ব্যানার্জি এসেছিলেন দুটো পূজোর উদ্বোধন করেন।

গতকাল বিধায়ক অভিনেত্রী দেবশ্রী রায় শহরের তিনটি পূজো উদ্ধোধন করেন। শহর সভাপতি বিশ্বনাথ পান্ডব এর ১৯ নং ওয়ার্ডের ১১ বছরের পূজো, তৃণমূল নেতা সুজয় হাজরার গোয়ালপাড়া সার্বজনীন জগদ্ধাত্রী পূজা এবং অরবিন্দনগর সার্বজনীন জগদ্ধাত্রী পূজা। আজ পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী শহরে পাঁচটি পূজোর উদ্বোধন করবেন। তার। মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো কাউন্সিলর অনিল দলবেরা ও নেতা শংকর মাঝির কর্নেলগোলা নবীন প্রবীণ সংঘের সার্বজনীন জগদ্ধাত্রী পূজা, ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মৌ রায়ের মিত্রকম্পাউন্ড স্টেশন রোড সার্বজনীন জগদ্ধাত্রী পূজা এবং বিধায়ক দীনেন রায় এর পূজো।

সাধারণ মানুষের মনে প্রশ্ন জাগছে এত করেও দিদি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর উপর ভরসা রাখলেও নীচের তলায় নেতাদের উপর ভরসা বা বিশ্বাস এর জায়গায় আছে তো? যারা নিজেদের দলের নেতাদের বা কাউন্সিলর দের উপর বিশ্বাস স্থাপন করতে পারেন। তারা সাধারণ মানুষ এর উপর আস্থা রাখবে? জগদ্ধাত্রী পুজোয় মেতেছে মেদিনীপুর ।

বছর বছর ধরে এই শহরে বাড়ছে জগদ্ধাত্রী পুজোর সংখ্যা। এবারে মোট ৩৭ টি সর্বজনীন পুজো হচ্ছে। বাড়ির পুজো হচ্ছে ১৬ টি। খয়েরুল্লা চক, জেলা পরিষদ রোড, পঞ্চুরচক , কর্নেলগোলা , বিবিগঞ্জ , মির্জাবাজার , সহ করাতিপাড়া , বল্লভপুর , হবিবপুর , সিপাইবাজার এলাকার পুজো নজর কেড়েছে। আবৃত্তি শিল্পী অনুভব পাল করাতিপাড়া পুজোর উদ্বোধন করেন। আজ জগদ্ধাত্রী পুজোর উদ্বোধন এ এসে শুভেন্দু অধিকারী বলেন সর্বধর্ম এর সমন্বয় সাধন করে এগিয়ে চলার, চরৈবতী চরৈবতী এই মন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে এগিয়ে চলার। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সহ-সভাপতি অজিত মাইতি, বিধায়ক প্রদ্যুৎ ঘোষ, দীনেন রায়, রমা প্রসাদ গিরি, কাউন্সিলর মৌ রায় সহ অন্যান্য বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!