তৃণমূল সার্কাসের দল, ক্ষমতা থাকলে বিপ্লব মিত্র-সোনা পালকে নিয়ে বৈঠক করুক : মুকুল রায়







বালুরঘাট, ১৪ মার্চ: তৃণমূলের ক্ষমতা থাকলে বিপ্লব মিত্র ও শুভাশিস পাল ওরফে সোনা পালকে এক সঙ্গে নিয়ে বৈঠক করুক তো দেখি। পারবে? এখানে বিপ্লব মিত্র এক দিকে চলে, সোনা পাল এক দিকে চলে। আবার শঙ্কর চক্রবর্তী এক দিকে চলে অর্পিতা ঘোষ তো আর এক দিকে চলে। এটা তো এখন একটা সার্কাস পার্টি। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দল সম্বন্ধে এই ভাবেই মন্তব্য করলেন একদা তৃণমূল কংগ্রেসের সেকেন্ড ইন কমান্ড মুকুল রায়। যদিও মুকুল রায়ের এমন মন্তব্যকে আমূল দিতে নারাজ তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি বিপ্লব মিত্র। উলটে তিনি বলেন মুকুলবাবু ভাল করেই যানেন কোনটা সার্কাসের দল।





 

প্রসঙ্গত, আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনকে সামনে রেখে বুধবার দুই দিনাজপুর ও মালদা জেলা বিজেপি নেতৃত্বদের নিয়ে কর্মশালা অনুষ্ঠিত হল বালুরঘাট নাট্য মন্দিরে। কর্মশালায় হাজির ছিলেন রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব মুকুল রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক সুব্রত চ্যাট্টার্জী, সাধারণ সম্পাদক উত্তরবঙ্গ প্রতাপ ব্যানার্জী, তিন জেলার জেলা সভাপতি সহ অন্যান্য নেতৃত্ব। বৈঠক শেষে মুকুল রায় সাংবাদিক বৈঠক করেন। সেখানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মুকুলবাবু জানান, দক্ষিণ দিনাজপুর থেকে ৬হাজার জন তৃণমূল থেকে বিজেপি যোগ দিতে চলেছেন। সেই লিস্ট তার কাছে এসে পৌঁছেছে। যে ভাবে বিজেপি বাংলায় শক্তি বৃদ্ধি করছে তাতে আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে দুই দিনাজপুর ও মালদা জেলা পরিষদ বিজেপি দখল করবে এবং গোটা রাজ্যে বিজেপি ভাল ফল করবে।




জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী কোন্দলকেও তিনি এক হাতে নেন। কার্যত তৃণমূল কংগ্রেসকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে বলেন ক্ষমতা থাকলে বিপ্লব মিত্র ও শুভাশিস পালকে এক সঙ্গে নিয়ে বৈঠক করুক দল। পারবে এক সঙ্গে নিয়ে বৈঠক করতে তৃণমূল। এই জেলায় বিপ্লব মিত্র এক দিকে চলে, শুভাশিস পাল এক দিকে চলে। তো আরেক দিকে চলে শঙ্কর চক্রবর্তী ও অর্পিতা ঘোষ।





Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!