মানুষ বিভ্রান্ত, নির্বাচন কমিশন শুধুই নামমাত্র, পরিচালনা করছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়: মুকুল রায়




মালদা, ২ মে: “নিরাপত্তা কি হবে তা ঠিক না করেই ভোটের দিন ঠিক হয়ে গেল। সমস্ত বিষয়টাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রহসনে পরিণত করছে। এই পঞ্চায়েত নির্বাচনের দারিয়ার মানুষ বিভ্রান্ত। নির্বাচন কমিশন শুধুই নাম মাত্র। পরিচালনা করছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়”। দলীয় প্রার্থীদের প্রচারে মালদায় এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন রাজ্য বিজেপি নেতা মুকুল রায়।




দলীয় কর্মসূচি সহ জেলার বিজেপি প্রার্থীদের সমর্থনে প্রচার করতে বুধবার মালদায় আসেন রাজ্য বিজেপির হেভিওয়েট নেতা মুকুল রায়। নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী জেলার মানিকচক এলাকায় পৌঁছান মুকুল বাবু। জেলা পরিষদ, পঞ্চায়েত সমিতি, গ্রাম পঞ্চায়েত স্তরের প্রার্থীদের সঙ্গে নিয়ে মানিকচকের বিভিন্ন এলাকায় ভোটের প্রচার করেন মুকুল বাবু।

রাজ্য সড়ক ধরে কখনও পায়ে হেঁটে আবার কখনও গাড়িতে করে প্রচার চালান তিনি। তার এই র‍্যালিতে অংশগ্রহণ করেন বাইক নিয়ে কয়েক হাজার কর্মী সমর্থক। তবে বাইক বাহিনীর মাথায় ছিল না কোনও হেলমেট।

এদিন মালদা সফরে এসে বিজেপি নেতা মুকুল রায় জানান, “মানুষের ভোটে পরাজিত হবেন বলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পঞ্চায়েত নির্বাচনটা এমন প্রহসনে তৈরি করছে, এতে মানুষ বিভ্রান্ত। একবার বললেন ১-৩-৫, আবার বললেন ১৪, কি এমন পরিস্থিতি হল যে একদিনে নির্বাচন করতে হবে? শুধু মনোনয়ন প্রক্রিয়ায় ৩৪ শতাংশ আসন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতল তৃণমূল কংগ্রেস। এটা সর্ব কালের রেকর্ড, যা এর আগে কোনও দিন হয়নি। এরপর নিরাপত্তা কি হবে তা ঠিক না করেই ভোটের দিন ঠিক হয়ে গেল। সমস্ত বিষয়টাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একটা প্রহসনে তৈরি করছে।”

তিনি আরও জানান, ”এই নির্বাচন প্রক্রিয়ার দারিয়ায় মানুষ বিভ্রান্ত। কারণ কবে ভোট হবে ১৪ তারিখ? আমি প্রচারে এসে বলতে পারব না ভোট ১৪ তারিখ হবে কি হবে না। কোন বুথে দু’জন পুলিশকর্মী, না সশস্ত্র পুলিশ থাকবে, না পুলিশ থাকবেই না, কোনও বিষয়ই ঠিক হয়নি। এই সমস্ত পরিস্থিতির জন্য দায়ী রাজ্য সরকার এবং দায় দায়িত্ব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই নিতে হবে। আমরা শান্তিপূর্ণ ভোট চাই”।

এদিকে মানিকচকে প্রচার শেষে মুকুল রায় জানান, “মানুষের সমাগম দেখে আমি অভিভূত। যেভাবে মানুষ এগিয়ে এসেছে এবং বিজেপি প্রার্থীদের সমর্থনে পা মিলিয়েছেন তা দেখে আমি নিশ্চিত মালদায় বিজেপি তার নিজস্ব ভীত আরও মজবুত হবে”।

এরপরই অন্যান্য প্রার্থীদের সমর্থনে প্রচারে বেরিয়ে পড়েন মুকুল রায়। তার রতুয়া, পুরাতন মালদা, হবিবপুর, বামনগোলা, ইংরেজবাজার ব্লক এলাকায় নির্ধারিত কর্মসূচি রয়েছে।





You May Also Like

error: Content is protected !!