টেলিপর্দায় এবার জামাই-শ্বশুরের কোন্দল




বিনোদন:,৩০ জুন:বিয়ের পরে মেয়েরা শ্বশুরবাড়ি গেলে তা স্বাভাবিক আর ছেলেরা গেলেই অস্বাভাবিক, এমনটা কোথায় লেখা রয়েছে? শাশুড়ি-বউমার অম্লমধুর রসায়ন যদি দর্শককে আমোদ দিতে পারে তবে জামাই-শ্বশুরের কোন্দলই বা হবে না কেন? অবশ্য় বিষয়টা নতুন নয়, এর আগে এই নিয়ে ছোটপর্দায় বেশ কিছু কাজ হয়েছে। বড়পর্দায় বরং এই বিষয় নিয়ে কাজ কমই হয়েছে তুলনায়। এবার ছোটপর্দায় আরও একবার শ্বশুর ও জামাইয়ের হাড্ডাহাড্ডি ম্য়াচ।




জি বাংলা সিনেমা অরিজিনালস-এর নতুন ছবি ‘জামাই এল ঘরে’ একটি ফ্য়ামিলি কমেডি। ঘরজামাই কি সত্য়িই জ্বালা? আর জ্বালা যদি হয় তবে সেটা কোন মাত্রার, তার একটা ছোট্ট নিদর্শন দেখতে পাবেন দর্শক এই টেলিছবিতে। গল্পটা খানিকটা এই রকম– মেয়ের (ঋদ্ধিমা ঘোষ) বিয়ে দিয়ে শান্তিতে ছুটি কাটাবেন বলে স্থির করলেন যেই দিব্য়কান্তি (সব্য়সাচী চক্রবর্তী), তখনই বাড়িতে হঠাৎ এসে উপস্থিত জামাই (সমদর্শী দত্ত)।

জামাই বাড়িতে আসাটা অস্বাভাবিক কিছু নয় কিন্তু চলতি সামাজিক রীতি অনুযায়ী জামাইয়ের অনির্দিষ্টকাল শ্বশুরবাড়িতে থেকে যাওয়াটা অস্বাভাবিক। সেটাও হয়তো খানিকটা মানিয়ে নিতেন দিব্যকান্তিবাবু কিন্তু সমস্য়া শুরু হল দখলদারি নিয়ে। তাঁর প্রিয় রকিং চেয়ার, অত্য়ন্ত প্রয়োজনীয় টিভির রিমোট থেকে শুরু করে ডিভিডি কালেকশন– নির্লজ্জভাবে সব কিছুর দখলে নিতে শুরু করল জামাই।

শুধু তাই নয়, ভোজনরসিক জামাই শ্বশুরবাড়িতে জাঁকিয়ে বসতে না বসতেই রান্নাঘরের উপর আধিপত্য় বিস্তার করা শুরু। স্নেহের সাগর শাশুড়ি মা (তুলিকা বসু) জামাইয়ের পছন্দ মতোই প্রতিদিনের মেনু ঠিক করতে লাগলেন। এত সব সহ্য় করতে না পেরে, এবার এসপার-ওসপার দেখে নেবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললেন দিব্য়কান্তি। কী সেই সিদ্ধান্ত এবং তার ফলাফলই বা কী হল, তা বলে দিলে তো টেলিছবি দেখার মজাটাই মাটি।

সুদেষ্ণা রায় ও অভিজিৎ গুহ পরিচালিত এই টেলিছবির সম্প্রচার হবে ২৯ জুন, সন্ধ্য়া ৭টায়, জি বাংলা সিনেমা-তে। উইকএন্ডের সন্ধ্য়ায় যাঁদের সিনেমা দেখা বা ডিনারের পরিকল্পনা নেই, তাঁদের জন্য় জমজমাট প্য়াকেজ-বিনোদন যাকে বলে। বিশেষ করে জামাই ও শ্বশুর যদি একসঙ্গে বসে দেখতে পারেন তবে তো আর কোনও কথাই নেই। সূত্র: indianexpress




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!