প্রয়াত হলেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের প্রাক্তন সপ্তম মহাসচিব কোফি আন্নান৷




ওয়েব ডেস্ক, ১৮ আগস্টঃ প্রয়াত হলেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের প্রাক্তন সপ্তম মহাসচিব এবং ঘানার কূটনীতিবিদ কোফি আন্নান৷ শনিবার সকালে সুইজারল্যান্ডে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি৷ ‘কোফি আন্নান ফাউন্ডেশন’ তাঁদের ট্যুইটার পেজে ঘোষণা করে তাঁর মৃত্যুর কথা। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। জানা গিয়েছে, অসুস্থতার কারণে চিকিৎসা চলছিল তাঁর৷ সম্প্রতি তিনি দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়েছিলেন৷




১৯৩৮-এর ৮ এপ্রিল কুমাসিতে জন্ম কোফি আত্তা আন্নানের৷ প্রাথমিক পড়াশোনা শেষ করে কুমাসির কলেজ অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি-তে পড়েন তিনি৷ মিনেসোটার ম্যাকালেস্টার কলেজে অর্থনীতি নিয়ে পড়াশোনা করেন তিনি৷ ২০ বছর বয়সে তিনি ফোর্ড ফাউন্ডেশন স্কলারশিপ পান৷ ১৯৬১ ব্যাচেলর ডিগ্রী অর্জন করেন তিনি৷ গ্র্যাজুয়েশনের পর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)-এ কাজে যোগ দেন তিনি৷ জেনেভাতে অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার এবং বাজেট অফিসার হিসেবেও কাজ করেন তিনি৷

সপ্তমবারের জন্য রাষ্ট্রসংঘের প্রধান হিসেবে ১০ বছর ছিলেন তিনি। ২০০১ সালে নোবেল শান্তি পুরস্কার পান কোফি আন্নান। ঘানার মানুষ ছিলেন তিনি। তবে, সম্প্রতি আন্নান সুইস রাজধানী জেনেভার একটি শহরে থাকতেন। শনিবার সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর। তিনিই ছিলেন প্রথম কৃষ্ণকায় আফ্রিকান যিনি ১৯৯৭ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত বিশ্বের শীর্ষ কূটনীতিবিদের পদে আসীন ছিলেন।

সিরিয়ায় শান্তি ফেরাতে তাঁর অবদান ছিল অনস্বীকার্য। বিশ্বের তাবড় কূটনীতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ জানাচ্ছে, যেখানেই মানুষ সমস্যায় পড়ত অথবা,অসহায় হয়ে পড়ত সাধারণ মানুষ। আন্নান পৌঁছে যেতেন ঘটনাস্থলে। সমাধান সুত্র বের করার চেষ্টা করতেন। আন্নানের সময়কালে ইরাকের যুদ্ধ এবং এইডসের মতো দুটি ইস্যু নিয়ে ব্যাপক বিতর্ক ছড়ায়। শক্ত হাতে সেই সমস্যার সমাধান করেন কোফি আন্নান।




You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!