এবার সামনে এল যৌন কেলেঙ্কারি, ফের বিপাকে সিপিএম সাংসদ ঋতব্রত

বালুরঘাট, ৮ অক্টোবর : মাস খানেক আগেই দল থেকে বহিষ্কার করেছিল CPI(M) নেতা তথা সাংসদ ঋতব্রত ব্যানার্জীকে। তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা একাধিক অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পরই বহিষ্কার করে দল। এর মাঝেই বান্ধবীর সঙ্গে তাঁর কয়েকটি ঘনিষ্ঠ ছবি সোশাল মিডিয়ায় সামনে আসে। তা নিয়েও দেখা দেয় নানান বিতর্ক। আর এর রেশ কাটতে না কাটতেই এবার তাঁর বিরুদ্ধে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগ আনলেন বালুরঘাটের খাদিমপুরের এক যুবতি। এমনকী টাকা দিয়ে তাঁর মুখ বন্ধের চেষ্টা করা হয়েছে বলেও অভিযোগ ওই যুবতীর। এই বিষয় নিয়ে এদিন তিনি মুখ্যমন্ত্রী থেকে প্রধানমন্ত্রীকে মেল ও টুইট করেন।



প্রথমে দামি ঘড়ি ও পেন ব্যবহার করা নিয়ে বিতর্কের সূত্রপাত ঘটে। তার মাঝেই রাজ্যসভার সাংসদ ঋতব্রত ব্যানার্জীর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠতে থাকে। দলের অনেকেই তাঁর বিরুদ্ধে এনিয়ে সরব হয়। বেশ কয়েকজন মহিলা সদস্যও তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন বলে সূত্রের খবর। এরপর তাঁর বিরুদ্ধে বিশেষ তদন্ত কমিটি গঠন করে দল। সেখানে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা চারটি অভিযোগ প্রমাণিত হয়। এর মাঝেই তদন্ত কমিটির সদস্য মহম্মদ সেলিমের বিরুদ্ধে এক সংবাদমাধ্যমে মুখ খোলেন তিনি। এরপরই বহিষ্কার করা হয় তাঁকে।




বিজ্ঞাপন

তবে দল থেকে বহিষ্কারের পরও বিতর্ক ছাড়ছে না ঋতব্রতর। এর মাঝেই সোশাল মিডিয়ায় বান্ধবীর সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি ছড়িয়ে পড়ে। আর এবার তাঁর বিরুদ্ধে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগ আনলেন বালুরঘাটের খাদিমপুর এলাকার এক যুবতি। তিনি পেশায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। তাঁর অভিযোগ, দীর্ঘদিন শারীরিক সম্পর্কের পর এখন বিয়ে করতে চাইছেন না ঋতব্রত। এমনকী অন্য একজনকে দিয়ে খুন, ধর্ষণের হুমকিও নাকি দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, মুখ বন্ধ করার জন্য তাঁর অ্যাকাউন্টে আড়াই লাখ টাকা দিয়েছেন বলেও ওই যুবতির অভিযোগ। এছাড়া ৫০ লাখ টাকা দেবেন বলে নাকি প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন। কিন্তু, তিনি টাকা চান না। তিনি বিচার চান বলে সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *