শেষ দফা ভোটের আগে, মহিলা মারফত প্রচুর নগদ টাকা সহ চেক উদ্ধার




দক্ষিণ ২৪ পরগনা,১৭ মে:সপ্তম অর্থাৎ শেষ দফা ভোটের আগে মেদিনীপুর এর পর আবারও হিসেব বহির্ভূত প্রচুর নগদ টাকা সহ চেক উদ্ধার এর ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছাড়ালো দক্ষিণ ২৪ পরগনায় । বারুইপুর পুলিশ জেলার পুলিশ আধিকারিকরা বৃহস্পতিবার গভীর রাতে গোপন সূত্রে খবর পায় যে নির্বাচন কমিশনের বিধি নিষেধ লংঘন করে বারুইপুরের দিক থেকে একটি সাদা জাইলো গাড়িতে করে মহিলা মারফত প্রচুর নগদ টাকা কুলতলীর দিকে নিয়ে যাচ্ছে বিজেপির এক নেতা । সূত্রের খবরের উপর গুরুত্ব দিয়ে খবর দেওয়া হয় জয়নগর ও বকুলতলা থানার পুলিশ ও বারুইপুর মহিলা থানায় পাশাপাশি নির্বাচনে কর্ত্যব্যরত দুজন ম্যাজিস্টেটকেও জানানো হয় বিষয়টি ।




সাথে সাথে বারুইপুর থেকে কুলতলী যাওয়ার সমস্ত রাস্তায় নাকা তল্লাসী চালাতে থাকে জয়নগর ও বকুলতলা থানার পুলিশ সঙ্গে থাকে বারুইপুর মহিলা থানার পুলিশ এবং ম্যাজিস্টেটও । পুলিশি তল্লাসী এড়াতে দক্ষিন বারাশত থেকে ভিতরের একটি রাস্তা ধরে ঐ গাড়িটি পালানোর চেষ্টা করে । কিন্তু তাতেও রেহাই মেলেনা বিজেপির ঐ নেতার । অবশেষে বকুলতলা থানার বুড়োর ঘাট মোড়ে পুলিশের জালে ধরা পড়ে যায় দুই মহিলা সহ ঐ বিজেপি নেতা । তল্লাসী চলতে থাকে গাড়ীর বিভিন্ন জায়গায় । দুই মহিলাকে যখন মহিলা পুলিশ তল্লাসী করতে থাকে তখন তাদের শাড়ির মধ্য থেকে ২৪ লক্ষ ১২ হাজার নগদ টাকা উদ্ধার হয় ।

ধৃত দুই মহিলার নাম সরস্বতী হালদার, বাড়ী কুলতলী থানার কেল্লা এলাকায় এবং নমিতা সরদার , বাড়ী বারুইপুর থানার গোচরন এলাকায় । গাড়িতে থাকা অপর ব্যক্তির নাম মিন্টু হালদার । প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পারে তিনি বিজেপির বারুইপুর মন্ডল সম্পাদক । তাঁর কাছে থাকা একটি ব্যাগের মধ্য থেকে এ্যাকসিস ব্যাংক জয়নগর শাখার একটি দশ লক্ষ টাকার এ্যাকাউন্ট পে চেক পাওয়া যায় । যে চেকটিতে জয়নগর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থীর সাক্ষর করা আছে এবং আরো অনেক দলীয় কাগজ পত্র উদ্ধা ।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!