পণের দাবীতে বিবাহিত গৃহবধুকে খুন করার অভিযোগ




দক্ষিণ ২৪ পরগনা,০৭ ফেব্রুয়ারি:পণের দাবীতে সদ্য বিবাহিত গৃহবধুকে খুন করার অভিযোগ স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলপি থানা এলাকার শ্যামবসুরচকের কাঠরা মনোহরপুরের। নিহত গৃহবধূ বছর ১৯ এর মঞ্জু খাতুন। জানা যায়, মাত্র ২ মাস আগে পারিবারিক সম্বন্ধ করে কাকদ্বীপ থানা এলাকার নামখানা নারায়নপুর ৩ এর ঘেরি এলাকার বাসিন্দা মঞ্জু খাতুনের সাথে কুল্পি থানা এলাকার কাঠরা মনোহরপুরের বাসিন্দা সইদুল মল্লিক বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়।




নিহত গৃহবধূ মঞ্জু খাতুনের পরিবারের লোকজনের অভিযোগ, বিয়ের সময় কথামতো মঞ্জু খাতুনের বাপের বাড়ির লোকজন পণ দিয়েছে সইদুল মল্লিককে। এরপরও বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন সময় বাপের বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য গৃহবধূ মঞ্জুকে মারধোর করত তার স্বামী। সদ্য ২ মাস বিবাহিত জীবন এভাবেই কাটছিলো মঞ্জুর। গতকাল সন্ধ্যায় মঞ্জু খাতুনের শ্বশুর বাড়ি থেকে তার বাপের বাড়ি ফোন করে বলা হয় তাদের মেয়ে নিজেই ঘরবন্দী হয়ে রয়েছে। তারা যেন এখনই মঞ্জুকে নিতে কাঠরা মনোহরপুরে আসে। এরপরই তড়িঘড়ি মঞ্জুর বাপের বাড়ির লোকজন পৌঁছে যায় তার শ্বশুর বাড়িতে। বাড়িতে গিয়ে দেখেন দরজা বন্ধ বাড়ি ফাঁকা। এরপর ঘরের তালা খুলে মঞ্জু খাতুনের ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান তারা। পরে কুলপি থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। ঘটনার পর থেকে পলাতক শ্বশুর বাড়ির লোকজন। ইতিমধ্যে ঘটনায় মঞ্জু খাতুনের পরিবারের লোকজনের অভিযোগে অভিযুক্ত সইদুল মল্লিককে গ্রেফতার করেছে কুলপি থানার পুলিশ।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!