সাপের কামড়ে মৃত এক গৃহবধূকে বাঁচানোর চেষ্টায় ওঝার দ্বারস্থ




দক্ষিণ ২৪ পরগনা,১৪ জুলাই:সাপের কামড়ে মৃত এক গৃহবধূকে বাঁচানোর চেষ্টায় ওঝার দ্বারস্থ হলেন পরিবারের সদস্যরা। হাসপাতাল থেকে মৃত্যু ঘোষণা করা হলেও অন্ধবিশ্বাসে ভরসা করে মৃত মনিমালা দাসের পরিবারের লোকেরা স্থানীয় এক ওঝার কাছে নিয়ে যান দেহ। সেখানে দীর্ঘক্ষণ ঝাড়ফুঁক চলার পর অবশেষে হারউড পয়েন্ট কোস্টাল থানার পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার হার উড পয়েন্ট কোস্টাল থানার কালিতলা গ্রামে।




স্থানীয় সূত্রে খবর শুক্রবার রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় মনিমালা দাস নামে ঐ গৃহবধূকে সাপে কামড়ায়। পরিবারের লোকজন স্থানীয় এক ওঝার কাছে নিয়ে যান। সেখানে গেলে ওঝা ঝাড়ফুঁক না করে তাদেরকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন রুগীকে। এরপর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরিবারের লোকেরা তখনও ওই গৃহবধূর মৃত্যুর কথা বিশ্বাস করতে পারেন নি। আর সেই কারণেই হাসপাতাল থেকে ফের ওঝার কাছে তাকে নিয়ে যান। এবার চলে ওঝার কেরামতি। মৃতদেহে প্রাণ ফেরানোর জন্য চলে ঝাড়ফুঁক। দীর্ঘ পাঁচ ছয় ঘণ্টা ঝাড়ফুঁক এর পর ও জীবিত হননি সাপের কামড় খেয়ে মারা যাওয়া ওই গৃহ বধূ। তবে ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত এর জন্য পাঠিয়েছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!