কু-প্রস্তাব, রাজি না হওয়ায় আক্রান্ত গৃহবধূ




দক্ষিণ ২৪ পরগনা, ১১জুলাই: জয়নগর থানার অন্তর্গত বামনগাছি অঞ্চলের অরুননগর গ্রামের বাসীন্দা পিন্টু হালদার পেশায় দিনমজুর। তার স্ত্রী রুপা হালদার কলকাতায় পরিচারিকার কাজ করে। কলকাতায় কাজের জন্য গ্রাম থেকে গোচরন রেল ষ্টেশন পর্যন্ত রুপা প্রতিদিন ইঞ্জিন ভ্যানে চেপে যাতায়াত করে।




 

অভিযোগ, প্রতিবেশী যুবক সন্জয় সাঁফুই প্রায় দিন তার রাস্তা আটকে নানান কু প্রস্তাব দিতে থাকে। এ নিয়ে রুপার স্বামীর সাথে সন্জয়ের একাধিকবার গন্ডগোল ও হয়। গতকাল রুপা কলকাতা থেকে ফেরার সময় সন্ধ্যায় যখন গোচরন ষ্টেশন চত্বরে ভ্যানে উঠতে যাবে, সেই সময় হটাৎ ই ভ্যান থেকে নামিয়ে রুপাকে জোর করে অন্যত্র নিয়ে যেতে চায় অভিযুক্ত যুবক।

 

অন্ধকার রাস্তায় তাকে শ্লীলতাহানী করতে থাকে সন্জয়, রুপা বাধা দিতে গেলে তাকে বেধড়ক মারে বলে অভিযোগ। এরপর রুপার চিৎকার করলে, তাকে ছেড়ে পালায় সন্জয়। কিন্তু এখানেই শেষ নয়, এরপর রুপা পাড়ার কাছাকাছি বেলপুকুর এলাকায় পৌঁছালে সেখানে নিজের বাড়ীর কাছেই আবার রুপার উপর ঝাঁপিয়ে পরে সন্জয়, সেই সময় রুপা নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করলে ইট দিয়ে রুপার মাথায় আঘাত করে সন্জয় এবং এই কাজে সহযোগিতা করে সঞ্জয়ের মা। এমনটাই অভিযোগ আক্রান্ত  ওই গৃহবধূর।

 

জখম গৃহবধূর চিৎকারে এলাকার মানুষ বেরিয়ে পড়ে এবং রুপাকে রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয় পদ্মের হাট গ্রামীন হাসপাতালে নিয়ে যায় সেখানে চিকিৎসার পর রুপা ও তার পরিবারের লোকজন জয়নগর থানায় অভিযুক্ত যুবক সন্জয় ও তার মা জবা সাঁফুই এর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে। আক্রান্ত গৃহবধূর অভিযোগের ভিত্তিতে জয়নগর থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।




You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!