বাড়িতে ঢুকে কলেজ ছাত্রীর ওপর হামলা, অভিযুক্ত মালদা জেলা ছাত্র পরিষদের সভাপতি

মালদা, ২৯ জুন : থানা থেকে অভিযোগ না তলায় কলেজ ছাত্রীর বাড়িতে ঢুকে হামলা সহ আগুন লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগ মালদা জেলা ছাত্র পরিষদের সভাপতির বিরুদ্ধে। স্থানীয়দের তৎপরতায় আগুন নেভানো হয়। ঘটনাটি ঘটেছে মালদা শহরের মহানন্দপল্লী এলাকায়। ঘটনায় চাঞ্চল্য এলাকায়।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ১০মার্চ মালদা জেলা ছাত্র পরিষদের জেলা সভাপতি বাবুল শেখের বিরুদ্ধে বারংবার কুপ্রস্তাব সহ হেনস্থা এমনকি বাড়িতে ঢুকে তার ওপর হামলার অভিযোগ তোলেন গৌড় মহাবিদ্যালয়ের তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রী। সেসময় ওই ঘটনায় ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিতা ছাত্রী। তারপর পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে অভিযুক্ত ছাত্র পরিষদের বাবুল শেখকে গ্রেফতার করে। পড়ে জামিনে ছাড়া পায় বাবুল। অভিযোগ তারপর থেকেই বারংবার অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য ওই ছাত্রী সহ তার পরিবারের ওপর চাপ ও হুমকি দিতে থাকে বাবুল শেখ।

বুধবার গভীর রাতে আবারও ওই ছাত্রীর বাড়িতে হামলা চালায় অভিযুক্ত ছাত্র পরিষদ নেতা ও তার দলবল বলে অভিযোগ। ছাত্রীর বাড়িতে ঢুকে মারধর সাথে আগুন লাগিয়ে দেয়। স্থানীয়রা ছুটে এলে অভিযুক্তরা পালায়। স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নেভানো হয়। ঘটনায় ওই ছাত্রী অজ্ঞান হয়ে পড়লে রাতেই মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ঘটনা প্রসঙ্গে নির্যাতিতা ওই ছাত্রী জানান,”গভীর রাতে বাথরুমে যাওয়ার জন্য ঘরের বাইরে বেরোতেই দেখি দাউদাউ করে আগুন জ্বলছে। আমার গলা ধরে একজন বলছে কেস না তুললে খুন করব। চারজন ঘরে ঢুকে ছিল। তাদের মুখ ঢাকা ছিল। ওটা বাবুল শেখ ছিল বলে আমি নিশ্চিত। আমি চিৎকার করতেই তারা পালিয়ে যায়। আমি চাই বাবুল শেখের শাস্তি হোক। নইলে আমার বাড়িতে থাকা দুস্কর হয়ে উঠবে।

ঘটনা প্রসঙ্গে ওই ছাত্রীর মা জানান, আমার মেয়েকে ওই ছেলেটা নানান ভাবে হেনস্থা করে। এই কারণে মেয়ের এক বছর পড়াশোনা নষ্ট হয়ে গেছে। মেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ছেলের কুকর্ম তুলে ধরে বারংবার বাড়িতে হামলা চালিয়েছে ওই বাবুল। কাল রাতে বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। মেয়ের পড়নের কাপড়েও আগুন লেগে গেছিল।

ঘটনায় আবারও বৃহস্পতিবার ইংরেজবাজার থানায় ওই ছাত্রী ও তার পরিবার অভিযুক্ত ছাত্র পরিষদ নেতা বাবুল শেখের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে। ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *