শাস্ত্রীর সর্বকালের সেরা নেতার তালিকায় নেই সৌরভ!

ওয়েব ডেস্কঃ গত বছর টিম ইন্ডিয়ার কোচ বাছাই নিয়ে তুলকালাম কাণ্ড বেঁধেছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং রবি শাস্ত্রীর মধ্যে। দলে ডানকান ফ্লেচারের উত্তরসূরি বাছার দায়িত্ব পড়েছিল সৌরভ-শচীন ও লক্ষণকে নিয়ে গঠিত ভারতীয় বোর্ডের উপদেষ্টা কমিটির কাঁধে। সব দিক বিচার করে অনিল কুম্বলেকেই যোগ্য বলে মনে করেছিলেন তাঁরা। যার ফলে ডিরেক্টর শাস্ত্রীর আর কোচ হয়ে ওঠা হয়নি। আর এই পুরো ঘটনার জন্য সৌরভকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছিলেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার। সেই ঘটনায় পর কানপুরে টিম ইন্ডিয়ার ৫০০তম টেস্ট সেলিব্রেশনের মঞ্চে সৌরভ-শাস্ত্রীকে পাশাপাশি দেখে মনে হয়েছিল, সেসব তরজা এখন অতীত। স্পোর্টস ম্যান স্পিরিট হয়তো একেই বলে। কিন্তু কোথায় কী! সে ধারণা তো ভুল।

নতুন বছরে ভারতের প্রাক্তন টিম ডিরেক্টরের কথা বার্তা ফের প্রমাণ করে দিল, আগুন এখনও নেভেনি। ব্যক্তিগত বচসাকে এগিয়ে রেখে পেশাগত দিকেও পক্ষপাতদুষ্ট হয়ে পড়লেন তিনি। তা নাহলে কী আর দেশের সর্বকালের সেরা অধিনায়কদের তালিকা থেকে সৌরভের নামই বাদ দেন তিনি?

সদ্য ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। আসন্ন ভারত-ইংল্যান্ড সীমিত ওভারের সিরিজ থেকেই দায়িত্ব নিচ্ছেন বিরাট কোহলি। শাস্ত্রী ডিরেক্টর থাকাকালীন ধোনিকে অনেক কাছ থেকে দেখেছেন। তাই নেতা হিসেবে মাহির যে কোনও তুলনা হয় না, সে কথাই মানেন শাস্ত্রী। ক্যাপ্টেন কুলের প্রশংসা করতে গিয়ে তিনি বলেন, সাম্প্রতিক অতীতে দেশ তাঁর মতো নেতা পায়নি। ধোনিকে দাদা আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, “দাদা ক্যাপ্টেনকে আমি কুর্নিশ জানাই। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আগে ও বিরাটকে তৈরি হওয়ার জন্য অনেকটা সময় দিয়ে গেল। নেতা হিসেবে ও সবকিছু অর্জন করেছে। ওর সত্যিই আর প্রমাণ করার কিছু নেই।” এখানেই শেষ করেননি। সেরা অধিনায়কদের তালিকায় রেখেছেন বিশ্বকাপ জয়ী কপিল দেব, অজিত ওয়াডেকর এবং নবাব আলি খান পতৌদির নাম। কিন্তু কোথাও সৌরভের উল্লেখ পাওয়া গেল না। বরং জানিয়ে দিয়েছেন, তাঁর চোখে সেরা বলে আর কেউ নেই।

এমন কথা শুধু ক্রিকেটপ্রেমীরা কেন, ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরাও যে হজম করতে পারছেন না, তা বলার প্রয়োজন হয় না। আজহারউদ্দিন পরবর্তী যুগে যিনি ভারতীয় দলের খোলনলচে পাল্টে, ক্রিকেটের চিন্তাধারায় নয়া সূর্যোদয় ঘটিয়েছিলেন, তাঁকে বাদ দিয়ে যে এ দেশের ক্রিকেট ইতিহাস অসম্পূর্ণ, তা শাস্ত্রী না মানলেও, গোটা দেশ মানে। আর সেখানেই সর্বকালের অন্যতম সেরার আসনে চিরউজ্জ্বল হয়ে থাকবে দাদার নাম।

(সৌজন্যে সংবাদ প্রতিদিন)


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *