বালুরঘাটে তৃণমূল নেতা খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ১

বালুরঘাট, ১০ জানুয়ারিঃ তৃণমূল নেতা খুনের ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে গ্রেফতার হল বালুরঘাট থানার দোল্লা এলাকার বাসিন্দা প্রসেনজিত মণ্ডল (২৫) নামে এক যুবক । বালুরঘাট থানার অধীনে এক মহিলা সিভিক ভলেন্টিয়ার কর্মির দাদা ওই যুবক । তাকে এদিনই দক্ষিন দিনাজপুর জেলা আদালতে তুলল বালুরঘাট থানার পুলিশ । ধৃত প্রসেনজিত মণ্ডলকে ৪ দিনের পুলিশি হেফাজত মঞ্জুর করেছেন বিচারক । ওই যুবককে জেরা করেই সমস্ত ঘটনা সামনে আসবে বলে মনে করছে পুলিশ । খুনের পেছনে ইতিমধ্যে মহিলা সংক্রান্ত বিষয় সামনে এসেছে বলে খবর । সেই কারনে মৃত তৃনমূল নেতার এক শালিকাকেও দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে । ওই শ্যালিকার সঙ্গে মৃত ব্যাক্তির আগে পালিয়ে যাবার রেকর্ড ছিল বলে খবর ।

বালুরঘাট থানার আইসি সঞ্জয় ঘোষ বলেন, প্রতুল বর্মনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর পেছনে খুনের যোগ মিলেছে । ঘটনার দিন থেকেই মৃতর স্ত্রী, সঙ্গী যুবক এবং এক শালিকাকে কয়েকবার ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে । কিছু সুত্র মিলতেই দোল্লার বাড়ি থেকে প্রসেঞ্জিতকে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় । ওই খুনের পেছনে ওই যুবক জড়িত থাকা কিছু তথ্য মিলতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে ।

প্রসঙ্গত, নিখোঁজ থাকা তৃনমূল কংগ্রেস নেতার ক্ষত বিক্ষত মৃতদেহ রবিবার উদ্ধার হয়েছিল ভারত- বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া ভাটপাড়া গ্রামঞ্ছায়েতের তাল ডাঙ্গার মাঠের মধ্যে থেকে । মৃত প্রতুল বর্মণ(৩৯) নামে ওই ব্যাক্তি বালুরঘাটের অমৃতখন্ড গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃনমূলের অঞ্চল সম্পাদক ছিলেন । এমনকি ওই ব্যক্তির স্ত্রী শিপ্রা সরকার বর্মন বালুরঘাট পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য । গোষ্ঠী দন্ধের কারনে স্বামীকে খুন করা হয়েছে বলে দাবি ছিল ওই পঞ্চায়েত সদস্যার । তবে প্রথম থেকেই পুলিশের অনুমান মহিলা সংক্রান্ত কারনে হয়ত খুন হয়েছে ওই নেতা । তবে রাজনৈতিক দিকটিকেও গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ ।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *